১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সেরা গোল আবাহনীর সোহেলের

  • এএফসির সপ্তাহের সেরা গোল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শঙ্কা ছিল, সম্ভাবনাও ছিল। কখনও এগিয়ে, কখনও আবার পিছিয়ে। শেষ পর্যস্ত নানা জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ভোটের লড়াইয়ে জিতলেন সোহেল রানা। না, ঢাকা আবাহনীর এই মিডফিল্ডার কোন নির্বাচনে দাঁড়াননি। তারপরও সমর্থকদের বিপুল ভোটে তিনিই জিতেছেন। ব্যাপারটা ধোঁয়াশা মনে হচ্ছে, তাই না? খোলাসা করা যাক। এশিয়ান ফুটবল ফেডারেশনের (এএফসি) সপ্তাহের সেরা গোলের মালিক হয়েছেন সোহেল। ৫৭ শতাংশ (২৬ হাজার ৮৮টি) ভোট পেয়ে সেরা নির্বাচিত হন তিনি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন এনগুয়েন কুয়াং হায়। ভিয়েতনামের হ্যানয় এফসির এই খেলোয়াড় ৪০ শতাংশ (১৮ হাজার ১০৮টি) ভোট পান।

গত বৃহস্পতিবার এশীয় ফুটবলের নিয়ন্ত্রণ সংস্থার ওয়েবসাইটে এএফসি কাপের সপ্তাহ সেরা গোলের পুরস্কার পাওয়ার দৌড়ে চারজনের একজন ছিলেন সোহেল। সেখান থেকে ফুটবলভক্তদের ভোটে সেরা গোলের পুরস্কার নিশ্চিত করেন তিনি। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এএফসি কাপে বুধবারের ইন্টার জোন সেমিফাইনালের প্রথম লেগে অসাধারণ ও নয়নাভিরাম এক গোল করেন সোহেল। ৪-৩ গোলে আবাহনীর জয়ের ম্যাচে প্রথম গোলটি করেন তিনি। ৩২ মিনিটে প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে বাঁ পায়ের তীব্র শটে জালে বল জড়ান সোহেল। প্রতিপক্ষের এক ডিফেন্ডারের হেড এসে পড়ে নাবিব নেওয়াজ জীবনের পায়ে। এই ফরোয়ার্ড একটু জায়গা নিয়ে ব্যাকহিল করেন, সেখান থেকে বল পেয়ে সোহেল করেন বাজিমাত। এপ্রিল টুয়েন্টি ফাইভের গোলরক্ষক বাঁ দিকে ঝাঁপালেও বল ঠেকাতে ব্যর্থ হন।

গত ১৯ জুন এএফসি কাপের গ্রুপ ম্যাচে নেপালের মানাং মার্শিয়াংদির বিপক্ষে করা আবাহনীর মামুনুল ইসলামের চোখ ধাঁধানো গোলটিও হয়েছিল সপ্তাহের সেরা গোল।

নিজের করা গোলটি এএফসির সপ্তাহের সেরা নির্বাচিত হওয়ায় খুশি সোহেল। অথচ ম্যাচের সময় সোহেলের মনেই হয়নি তিনি অবিশ্বাস্য এই গোলটি করেছেন। নিজের অনুভূতি এভাবেই প্রকাশ করেন আবাহনীর এ মিডফিল্ডার, ‘এত ভাল গোল হয়েছে এটা আমি ম্যাচের সময় বুঝিনি। খেলা শেষে যখন ভিডিও দেখেছি তখন আমার কাছে মনে হয়েছে এটা অবিশ্বাস্য। এই গোল আমার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে। সামনে এএফসি কাপ ও জাতীয় দলে আমার অনেক ম্যাচ আছে। এইসব ম্যাচে ভাল খেলতে আমাকে অনুপ্রেরণা যোগাবে। সেরা গোল হওয়ায় আমি খুশি। আমার ক্যারিয়ারে এটা সেরা গোল।’

নির্বাচিত সংবাদ