১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নাটের গুরু মেসি!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দুই ব্রাজিলিয়ান ফুটবলারের দলবদল নিয়ে বর্তমানে সরগরম বিশ্ব ফুটবল। ইতোমধ্যে ধারে বার্সিলোনা থেকে জার্মান জায়ান্ট বেয়ার্ন মিউনিখে পাড়ি জমিয়েছেন এ্যাটাকিং মিডফিল্ডার ফিলিপ কুটিনহো। খবর রটেছে, লিওনেল মেসির কারণে সুযোগ না পেয়ে বার্সা ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন বর্তমান সময়ে দূরপাল্লার শটে সবচেয়ে সেরা এই তারকা।

মেসি কুটিনহোকে যেমন কাতালান শিবিরে মানিয়ে নিতে সহযোগিতা করেননি, ঠিক তার উল্টো ঘটনা নেইমারের ক্ষেত্রে। এই মেসিই বর্তমানে পিএসজিতে খেলা নেইমারকে আরেকবার বার্সায় দেখতে চান। এটা নিয়ে তার ক্লাব পর্ষদের সঙ্গে মন কষাকষিও চলছে বলে জানা গেছে। সবমিলিয়ে নেইমার ও কুটিনহোর দলবদলের মূল হোতা অর্থাৎ নাটের গুরু এখন পাঁচবারের ফিফা সেরা তারকা মেসি।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের উদ্ধৃতিতে জানা গেছে শুধু মেসিই নন, লুইস সুয়ারেজ, জেরার্ড পিকেদের মতো সিনিয়র খেলোয়াড়রা নেইমারের প্রত্যাবর্তন প্রসঙ্গে ক্লাব প্রেসিডেন্ট জোশে মারিয়া বার্টোমেউয়ের ওপর নাখোশ হয়েছেন। মূলত নেইমারকে ফিরে যেতে বার্সা যে অফার দিয়েছে পিএসজিকে এটা নিয়ে চটেছেন খেলোয়াড়রা। চাউর হয়েছে, নেইমারের জন্য মাত্র ১৪০ মিলিয়ন ইউরোর প্রস্তাব দিয়েছে কাতালানরা। এই তথ্যটি নাকি নেইমারই জানিয়েছেন মেসিদের। যে কারণে তারা ক্ষুব্ধ হয়েছেন ক্লাবের ওপর। অর্থাৎ বিষয়টি নিয়ে বার্সিলোনার ড্রেসিংরুম এখন বেশ উত্তপ্ত।

নেইমার অনেকটা স্পষ্ট করেই বার্সিলোনায় ফেরার কথা জানিয়েছেন। শুধু তাই নয়, দলটির সিনিয়র খেলোয়াড় সাবেক সতীর্থকে ফিরে পেতে উদগ্রীব। এ কারণেই নেইমারকে দলে ফেরানোর জন্য ক্লাব প্রেসিডেন্টকে চাপ দিয়ে যাচ্ছেন তারা। এ কারণে বার্সা বিভিন্ন ধরনের প্রস্তাব দিয়ে আসছে। এর মধ্যে ধারে এক মৌসুমের জন্য আনার পর ১৫০ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে স্থায়ীভাবে কিনে নেয়ার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। তবে শুরু থেকেই পিএসজি দাবি করছে ২৫০ মিলিয়ন ইউরো। কিন্তু নেইমারের কাছ থেকে নতুন তথ্য শুনে ক্লাব প্রেসিডেন্টের উদ্দেশ্য নিয়েই সন্দেহ দেখা দিয়েছে বার্সার ড্রেসিং রুমে। এই অবস্থায় বার্সার দুর্বলতার সুযোগ নিতে মুখিয়ে আছে রিয়াল মাদ্রিদ ও জুভেন্টাস। এটাও বার্সার খেলোয়াড়দের জন্য পীড়াদায়ক। বিশেষ করে নেইমার যদি চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদে যান সেটা হবে মেসিদের জন্য কঠিন এক পরিস্থিতি। তবে ঘটনা যেমনই হোক, এই মুহূর্তে নেইমারের প্রথম পছন্দ বার্সিলোনা। কিন্তু বার্সার জন্য আজীবন অপেক্ষা না করে প্যারিস ছেড়ে রিয়াল মাদ্রিদেও যেতে হতে পারে সেলেসাও তারকার। এমন অবস্থায় নেইমারের চাহিদার কথা বুঝে বিষয়টি নিয়ে ক্লাবের সিনিয়রদের সঙ্গে মেসি আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছেন। এদিকে কাগজে-কলমে এখনও কুটিনহো বার্সিলোনার খেলোয়াড়। কিন্তু ২০১৯-২০ মৌসুমে কাতালানদের জার্সিতে দেখা যাবে না তাকে। বার্সা থেকে ধারে বেয়ার্ন মিউনিখে যোগ দেয়ার কারণেই এমন হবে। তবে ব্রাজিলের সাবেক তারকা এ্যাটাকিং মিডফিল্ডার রিভাল্ডো খুশি হতে পারেননি কুটিনহো বার্সা ছাড়ায়। এ জন্য তিনি দায়ী করেছেন মেসিকে।

ব্রাজিলের ২০০২ বিশ্বকাপ জয়ে অসামান্য অবদান রাখেন রিভাল্ডো। নিজের পেশাদার ফুটবলের সেরা সময়টা তিনি কাটিয়েছেন বার্সায়। এই অভিজ্ঞতা থেকে রিভাল্ডো বলেন, দলে আপনার জায়গাটা খুঁজে পাওয়া সহজ নয় যেখানে মেসি সফলতার সব কৃতিত্ব ও দায়িত্ব নিজে নিয়ে নেয়। পৃথিবীতে খুব অল্প খেলোয়াড় আছে যারা এমন পরিস্থিতিতে মানিয়ে নিতে পারে। সম্ভবত দলে জায়গা করে নেয়ার জন্য কুটিনহোর যথেষ্ট ধৈর্য ছিল না। আর্জেন্টাইন তারকা দলনেতা এবং তিন-চার বছরের অধিক ধারাবাহিকভাবে নিজের সেরা খেলাটা খেলছে। এ কারণে অন্যান্য খেলোয়াড়ের বার্সিলোনায় জ্বলে ওঠা খুব কঠিন।

নির্বাচিত সংবাদ