১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কার রেসিংয়ে আবারও বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করলেন অভিক

কার রেসিংয়ে আবারও বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করলেন অভিক

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ স্বভাবে তিনি নির্ভীক। নাম তার অভিক। খেলেন অনেক বিপজ্জনক খেলা। যার নাম কার রেসিং। একটু ভুল করলেই গুরুতর আহত হওয়া তো বটেই, চলে যেতে পারে প্রাণটাই! সেখানে সাফল্য পাওয়া বা সেরা তিনের মধ্যে থাকতে পারাটা নিঃসন্দেহে বিরাট ব্যাপার। অভিক আনোয়ার এই বিরাট ব্যাপারটাই ঘটিয়েছেন, ঘটিয়ে যাচ্ছেন। এই যেমন রবিবার পেলেন নিজের কার রেসিং ক্যারিয়ারের তৃতীয় চোখ ধাঁধাঁনো সাফল্য। মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠিত ফর্মুলা ওয়ান ট্র্যাক রেসে (মালযেশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ সিরিজ এর রাউন্ড ৪ এর দ্বিতীয় রেস) অংশ নিয়ে ৪৮ প্রতিযোগীর মধ্যে তৃতীয় স্থানটি অলংকৃত করেছেন তিনি। এজন্য তিনি দৈনিক জনকন্ঠের মাধমে নিজের সফলতার জন্য আগেরদিনই দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছিলেন।

জনকণ্ঠকে অভিক জানান, ‘এই রেসে মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ম্যাকাও, হংকং, ভারত, জাপান, জার্মানিসহ মোট ৪৮ দেশের কার রেসার অংশ নেন। জাপান প্রথম এবং মালয়েশিয়া হয়েছে দ্বিতীয়। বাংলাদেশের প্রতিযোগী হিসেবে আমি হয়েছি তৃতীয়। এজন্য আল্লাহর কাছে অশেষ শুকরিয়া।’

অভিকের পরের রেস হবে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর, ভারতের চেন্নাইয়ে। আসরের নাম মাদ্রাজ মোটর রেস ট্র্যাক। এই রেসেও সাফল্য পেতে আত্মবিশ্বাসী তিনি।

এর আগে অভিক গত জুনে বাংলাদেশের জন্য বয়ে এনেছিলেন প্রথম ও ঐতিআসিক এক সাফল্য। ভারতে অনুষ্ঠিত ‘ইন্ডিয়ান টুরিং কার ন্যাশনাল চ্যম্পিয়নশিপ’-এ প্রথম স্থান অধিকার করেন (লাভ করেন উইনিং ট্রফি ও ৫০ হাজার ভারতীয় রুপি)। এটাই তার প্রথম আন্তর্জাতিক সাফল্য। সেই সঙ্গে বাংলাদেশেরও। এরপর জুলাইয়ে ভারতের চেন্নাইয়ে অনুষ্ঠিত সেদেশের জাতীয় মোটরস্পোর্ট ইভেন্ট ‘ভোক্সওয়াগন এমিও কাপ’-এ তৃতীয় স্থান অধিকার করেন।

এই প্রতিভাবান রেসার বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত একমাত্র মোটর স্পোর্টস প্রতিযোগিতা ‘রালি ক্রস’-এ ২০১৪, ২০১৫ ও ২০১৬ সালে হ্যাটট্রিক বিজয় অর্জন করেন। মুন্সীগঞ্জের বিক্রমপুরের ছেলে, বর্তমানে ঢাকার বনানী নিবাসী ও গাড়ি ব্যবসায়ী অভিক কানাডার টরন্টো ইউনিভার্সিটি থেকে অর্থনীতিতে সম্মানসহ মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেছেন।