২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শেয়ারবাজারে টানা ৫ কার্যদিবস সূচকের পতন

শেয়ারবাজারে টানা ৫ কার্যদিবস সূচকের পতন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের শেয়ারবাজারে পতন অব্যাহত রয়েছে। মঙ্গলবারও পতনে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। মঙ্গলবারসহ এই নিয়ে শেয়ারবাজারে টানা ৫ কার্যদিবস পতন হয়েছে। বহুজাতিক কোম্পানি গ্রামীনফোনসহ বেশ কিছু মৌলভিত্তিক কোম্পানির দর হারানোর কারণে উভয় শেয়ারবাজারের সব সূচক কমেছে। একইসঙ্গে কমেছে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর এবং টাকার পরিমাণে লেনদেন।

জানা গেছে, সকালে সূচকের নেতিবাচক প্রবণতা দিয়ে লেনদেন শুরু হয়। এক পর্যায়ে ডিএসইর সার্বিক সূচক ৫ হাজার পয়েন্টের নীচে নেমে যায়। তবে কিছুক্ষণ পরে সূচক পতন কিছুটা কমতে থাকে। দিনশেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৭ পয়েন্টে। ডিএসইতে অপর দুই সূচকের মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৫ পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১ হাজার ১৬৭ ও ১ হাজার ৭৫৯ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৩৯টি কোম্পানির মধ্যে ১০৯টি বা ৩২ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। অন্যদিকে দাম কমেছে ১৬৯টি বা ৫০ শতাংশ কোম্পানির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৬১টি বা ১৮ শতাংশ কোম্পানির।

এদিন ডিএসইতে ৩৯৮ কোটি ৮২ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিন থেকে ৪৮ কোটি টাকা কম। আগে দিন লেনদেন হয়েছি ৪৪২ কোটি ৯০ লাখ টাকার।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে মুন্নু সিরামিকের শেয়ার। এদিন কোম্পানির ২৭ কোটি ৮৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসা মুন্নু জুট স্টাফলার্সের ১৮ কোটি ৪৭ লাখ টাকার এবং ১৪ কোটি ৫১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে উঠে আসে স্টাইলক্রাফট। লেনদেনে এরপর রয়েছে - ইউনাইটেড পাওয়ার, গ্রামীণফোন, লিগ্যাসি ফুটওয়্যার, সিলকো ফার্মা, বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশন, বিকন ফার্মা এবং জেএমআই সিরিঞ্জ।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ১০৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ৩০৩ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৩৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৭০টির, কমেছে ১৩৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টির দর। সিএসইতে ১৫ কোটি ৯৯ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।