২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঝিনাইদহে অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্যকে শ্বাসরোধে হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঝিনাইদহ, ৯ সেপ্টেম্বর ॥ শহরের হামদহ দাসপাড়ায় নুরুজ্জামান নামে ৬০ বছরের অবসরপ্রাপ্ত এক বিজিবি সদস্যকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার সকালে ঘরে গলায় গামছা পেঁচানো উলঙ্গ অবস্থায় তার মৃতদেহ পড়ে ছিল। নুরুজ্জামান আব্দুল করিম বিশ^াসের ছেলে। ৭ মাস আগে বিজিবি থেকে তিনি অবসর গ্রহণ করেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মিলু মিয়া বিশ^াস জানান, অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্য নুরুজ্জামান রাতে দ্বিতীয় তলায় একা ছিলেন। তার স্ত্রী হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। তৃতীয় তলায় ছেলে- বৌমা ছিল। সকালে তার মেয়ে বাড়িতে ঢুকে দেখেন ঘরের মূল দরজা খোলা। বাবা দ্বিতীয় তলায় যে রুমে শুয়ে থাকেন সে রুমে নেই। ঘরের সমস্ত মালামাল ছিটানো। পাশের রুমে মেঝেতে গলায় গামছা পেঁচানো উলঙ্গ অবস্থায় পড়ে আছে। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন আছে। ঘরের কোন মালামাল দুর্বৃত্তরা নেয়নি। রাতের বেলা দুর্বৃত্তরা তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর এভাবে ফেলে রেখে যেতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সিরাজগঞ্জে নাতির হাতে নানি

স্টাফ রিপোর্টার সিরাজগঞ্জ থেকে জানান, নেশার টাকা না দেয়ায় নাতির ধারালো অস্ত্রের আঘাতে নানি ওয়াজেদা বেগম (৪৫) খুন হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার শিযালকোল ইউনিয়নের দেড়কালিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ওয়াজেদা একই গ্রামের আব্দুস সাত্তারের স্ত্রী। নিহতের বড় ভাই আবুল কালাম জানান, রবিবার সন্ধ্যায় নিহত ওয়াজেদার মেয়ের ঘরের ছেলে সিয়ামের (২০) সঙ্গে নেশার টাকা নিয়ে বাগবিত-া হয়। এরই এক পর্যায়ে সিয়াম কুড়াল দিয়ে নানির মাথায় আঘাত করে । পরে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় সিরাজগঞ্জে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। রাতেই সিয়াম সিরাজগঞ্জ সদর থানায় আত্মসমর্পণ করে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে।

দৌলতপুরে কৃষক

নিজস্ব সংবাদদাতা দৌলতপুর, কুষ্টিয়া, থেকে জানান, দৌলতপুরে ভবানী দাস (৪০) নামে এক কৃষককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার পিয়ারপুর ইউনিয়নের পিয়ারপুর দাসপাড়া গ্রামে হত্যাকা-ের এ ঘটনা ঘটেছে। সোমবার সকালে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। জানা গেছে, রবিবার রাত ১০টার দিকে জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে প্রতিবেশী সুমা দাস ও জিতেন দাসের সঙ্গে ভবানী দাসের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে সুমা দাস ও জিতেন দাস ক্ষুব্ধ হয়ে ভবানী দাসকে ধাক্কা দিলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে জ্ঞান হারায়। এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ভবানী দাসকে মৃত ঘোষণা করেন।

গোপালগঞ্জে চালক

নিজস্ব সংবাদদাতা গোপালগঞ্জ থেকে জানান, সোহান সিকদার (১৮) নামে এক ইজিবাইক চালককে গলা কেটে হত্যা করেছে একই এলাকার শাওন ফরাজী নামে আরেক ইজিবাইক চালক। এ ঘটনায় হত্যাকারী শাওন ফরাজীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার দুপুরে সদর উপজেলার সাতপাড় ইউনিয়ন ভূমি অফিসের সামনে থেকে সোহান সিকদারের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এর আগে রবিবার রাতে ওই এলাকায় তাকে হত্যা করা হয়। নিহত সোহান সিকদার গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের নীলখি গ্রামের গোলাম সিকদারের ছেলে এবং হত্যাকারী শাওন ফরাজী একই ইউনিয়নের গোলাবাড়ীয়া গ্রামের আলাল ফরাজীর ছেলে।

জানা গেছে, রবিবার রাতে শাওন ফরাজী সাতপাড় এলাকায় কবিগান শুনতে যাওয়ার জন্য সোহান সিকদারের ইজিবাইক ভাড়া করে। রাতে সোহান সিকদার বাড়িতে না ফেরায় তার পরিবারের লোকজন তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে কোন সন্ধান পায়নি।

ভৈরব নদে লাশ উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার খুলনা অফিস থেকে জানান, ভৈরব নদ থেকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির (৫০) লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর ৪ নম্বর ঘাট এলাকা থেকে খুলনা সদর নৌ থানা পুলিশ শার্ট-প্যান্ট পরিহিত লাশটি উদ্ধার করে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে গত ৩-৪ দিন অগে হত্যা হত্যা করা হয়েছে।