২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সারাদেশে দিনভর মাঝারি থেকে ভারি বর্ষণ

সারাদেশে দিনভর মাঝারি থেকে ভারি বর্ষণ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মৌসুমি বায়ু সক্রিয় থাকায় সারাদেশে কমবেশি বৃষ্টি শুরু হয়েছে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, দেশের দক্ষিণাঞ্চলে এর প্রভাবে মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টি শুরু হয়েছে। পাশাপাশি রাজধানীসহ উত্তরাঞ্চলের কিছু কিছু এলাকায় গুঁড়ি গুঁড়ি থেকে মাঝারি মাত্রায় বৃষ্টি হচ্ছে। ভাদ্রের শেষ সময়ে এসে এই বৃষ্টি কিছটা হলেও রাজধানীবাসীর মধ্যে স্বস্তির আবহ তৈরি করেছে। আগামী দুই/তিন দিন এই বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে।

আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা গেছে, সাগরে মৌসুমি বায়ু অধিক সক্রিয় থাকায় গত সপ্তাহ ধরে সমুদ্র বন্দরসমূহের ওপর ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সঙ্কেত দেয়া হয়েছে। মূলত বায়ুচাপের আধিক্যের কারণে উপকূলীয় এলাকায় ঝড়োহাওয়া বয়ে যেতে পারে এই আশঙ্কায়। তবে আজ মঙ্গলবার থেকে এই সতর্কতা সঙ্কেত তুলে নেয়া হতে পারে।

তারা জানান, ভারতের ছত্রিশগড় ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপটি বর্তমানে মধ্যপ্রদেশ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। এতে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও সমুদ্র বন্দরসমূহের ওপর দিয়ে ঝড়োহাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে তিন নম্বর (পুনঃ) তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সঙ্কেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে । উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারসমূহকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। তবে আবহাওয়া অফিস জানায়, এই সতর্কতা সঙ্কেত আজকের মধ্যে প্রত্যাহার করে নেয়া হচ্ছে।

আবহাওয়া অফিসের মতে, সারাদেশে মাঝারি মাত্রার বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকলেও অতিভারি বা একটানা বৃষ্টির কোন সম্ভাবনা নেই। তবে সেপ্টেম্বরে দেশে স্বল্পমেয়াদী বন্যা দেখা দিতে পারে, সেই আশঙ্কাও নেই। জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ আব্দুল মান্নান বলেন, মৌসুমি বায়ু সক্রিয় হওয়ায় দেশের দক্ষিণাঞ্চলে মাঝারি থেকে ভারি বৃষ্টি শুরু হয়েছে। এটি হয়ত আরও দু’একদিন থাকবে। এ সময়ে রাজধানী ঢাকায় বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া উত্তরাঞ্চলের কোন কোন এলাকা এবং উত্তর-পূর্বাঞ্চলের সিলেট, সুনামগঞ্জে বৃষ্টি হতে পারে। তবে তিনি উল্লেখ করেন, এই মুহূর্তে দেশে অতিবৃষ্টি বা টানা কোন বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা নেই।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং তা উত্তর বঙ্গোপসাগরে মাঝারি থেকে প্রবল অবস্থায় রয়েছে। এ কারণে খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় ঢাকা ও সিলেট বিভগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে অতি বর্ষণ হতে পারে। সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

এদিকে সোমবার সকাল থেকেই রাজধানীর আকাশ ছিল মেঘে ঢাকা। সারাদিন গুঁড়ি গুঁড়ি থেকে মাঝারি মাত্রার বৃষ্টিপাতও রেকর্ড হয়েছে। সকাল থেকে সন্ধ্যা নাগাদ রাজধানীতে ২২ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে। এদিন সবচেয়ে বেশি ৭৩ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে। আবহাওয়া অফিস জানায়, মৌসুমি বায়ু আগামী অক্টোবরের মাঝামাঝি পর্যন্ত দেশে অবস্থান করবে। এই সময়ে এর প্রভাবে আরও বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।