২০ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ফুটপাথ নাগরিক অধিকার

  • সফিউল্লাহ আনসারী

জনসাধারণের চলাচলের জন্য রাস্তার দুইধারে রয়েছে ফুটপাথ। অথচ পথচারীর নাগরিক অধিকার ফুটপাথে হাঁটাও কেড়ে নিয়েছে অবৈধ দখলদার। বিশেষ করে শহরাঞ্চলে, নগর-মহানগরে এই ফুটপাথ তৈরি হয় জনগণের নির্বিঘেœ চলাচলের জন্য। অথচ সচেতনদের ছত্রছায়ায় অসচেতন কম পুঁজির কিছু মানুষ এই ফুটপাথের হাঁটার জায়গায় দোকান বসিয়ে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। প্রাশাসনের নাগের ডগায় এসব পণ্যের পসরা সাজিয়ে কোন রকম তোয়াক্কা না করেই ফুটপাথ বন্ধ করে চলাচলে বাধা সৃষ্টি করছে। আমাদের মহানগরগুলোতে ফুটপাথ ও সড়ক দখল করে দোকান বসানো যেন একটি সাধারণ ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। স্বাভাবিক বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে হকারদের দখলে থাকা ফুটপাথে চলাচলে প্রতিবন্ধকতা। রাজধানীর প্রায় সব এলাকার সড়কের ফুটপাথই ভ্রাম্যমাণ হকারদের হাঁকডাকে সরগরম থাকে। ইচ্ছেমতো যে যার মতো করে বিভিন্ন পণ্যের দোকান-পাট বসিয়ে জনগণের চলাচলে সমস্যা তো করছেই তার সঙ্গে সৃষ্টি হচ্ছে বিশাল যানজটের। আর দখলদারদের এই দখলে স্থানীয় রাজনৈতিক, প্রভাবশালীদের হাত থাকায় সহজেই কেউ কিছু বলতে পারছে না। অনেক সময় প্রশাসনের কতিপয় ব্যক্তির আইন প্রয়োগে অনীহা ও অব্যবস্থাপনার কারণে স্থায়ীভাবে ফুটপাথ দখল হয়ে যাচ্ছে বলে বিজ্ঞ মহলের ধারণা। তীব্র যানজটের শহর ঢাকায় যানজট থেকে রেহাই পেতে অফিসগামী চাকুরে, স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীরা পায়ে হেঁটে যাওয়ার চেষ্টা করেও এই ফুটপাথ বন্ধ করে রাখায় সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। বেদখল হওয়া পথে পথচারীরা ফুটপাথ সহজভাবে ব্যবহার করতে না পেরে অস্বস্তিতে পড়ছেন প্রায়শই।

বেদখল সড়ক-ফুটপাথে পথ চলতে পথচারীর যন্ত্রণাময়-নাভিশ্বাস যেন নিত্যসঙ্গী। যে যার ইচ্ছামতো ফুটপাথ ও রাস্তা দখল করে ব্যবহার করছে, কেউ আবার অনেক এলাকায় নির্মাণ সামগ্রী মাসের পর মাস ফেলে রেখে সমস্যার সৃষ্টি করছে। ইটভাঙ্গার মেশিন, রড ট্রাক, বাস, প্রাইভেটগাড়িসহ বিভিন্ন যানবাহনও এই সড়ক-মহাসড়কের একটা অংশ বন্ধ করে ফেলে রাখা হয়। শহরে যানজটের একটা বড় কারণ এই যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং আর ফুটপাথ দখল করে স্থায়ী-অস্থায়ী দোকান নির্মাণ।

বিভিন্ন সময় সিটি কর্পোরেশন রাস্তা ও ফুটপাথের ওপর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত করে থাকে। কয়েকদিন পর আবার যেই সেই অবস্থা। আমাদের বিবেকবোধ জাগ্রত না হলে মনে হচ্ছে এর থেকে সহসাই মুক্তি মিলছে না। বর্তমানে ওভারব্রিজগুলোর অবস্থা আরও জটিল। এমনিতেই নির্দিষ্ট জায়গা, তার ওপর দুই পাশে বসে থাকে বিভিন্ন পণ্যের দোকান। সঙ্গে ভিক্ষুকদের শুয়ে-বসে ভিক্ষা করার দৃশ্য। যত যন্ত্রণা পথচারীদের। ফুটপাথ বেদখল থাকায় প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা, হতাহত হচ্ছে সাধারণ মানুষ।

নগর-মহানগরজুড়ে ভ্রাম্যমাণ দোকান আর ফুটপাথে হকারদের পণ্যের পসরা তো আছেই এর সঙ্গে নতুন করে আরেক যন্ত্রণা সম্প্রতি শুরু হয়েছে তার নাম ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেল। সময় বাঁচাতে অনেকেই এখন মোটরসাইকেলে চলাচল করছেন। মোটরসাইকেলের আরেক সমস্যা হচ্ছেÑ জ্যাম এড়াতে ফুটপাথের ওপর দিয়ে বেপরোয়া ছুটে চলা। এতে আরও বেশি আতঙ্কিত পথচারী। যে কোন সময় দুর্ঘটনার আশঙ্কা তো থাকছেই।

ভালুকা, ময়মনসিংহ থেকে