২০ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শেয়ারবাজারে সূচক কমেছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ শেয়ারবাজারকে স্থিতিশীল অবস্থায় ফিরাতে অর্থমন্ত্রী স্টেকহোল্ডারসহ বাজার সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বৈঠক করলেও পতন থামছে না। পতনের মাত্রা দিন দিন বেড়েই চলছে। পতনের এই ধারাবাহিকতায় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক কমে বুধবার ২ বছর ৯ মাস আগের অবস্থানে নেমে গেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, ডিএসইর সঙ্গে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সব সূচক কমেছে। একই সঙ্গে কমেছে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর। তবে এদিন সিএসইতে টাকার পরিমাণে লেনদেন কমলেও ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে।

জানা গেছে, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৮৮৮ পয়েন্টে। ডিএসইর এই সূচকটি ২ বছর ৯ মাস ৬ দিন বা ৬৭৭ কার্যদিবসের মধ্যে সর্বনিম্নে নেমে গেছে। এর আগে ২০১৬ সালের ১২ ডিসেম্বর ডিএসইএক্স বুধবারের থেকে কম স্থানে অবস্থান করছিল। ওইদিন ডিএসইএক্স সূচক ছিল ৪ হাজার ৮৬৯ পয়েন্টে। ডিএসইর অপর দুই সূচকের মধ্যে শরীয়াহ সূচক ১৬ পয়েন্ট ও ডিএসই-৩০ সূচক ১৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১ হাজার ১৩১ ও ১ হাজার ৭৩৬ পয়েন্টে।

ডিএসইতে ৩৭১ কোটি ৫৩ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৪৩৫ কোটি ৫৬ লাখ টাকার। অর্থাৎ ডিএসইতে লেনদেন ৬৪ কোটি ৩ লাখ টাকা বেশি হয়েছে।

ডিএসইতে ৩৫২ প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৯৭টির বা ২৮ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। দর কমেছে ২১৪টির বা ৬১ শতাংশের এবং ৪১টি বা ১১ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে। টাকার অংকে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে ন্যাশনাল টিউবসের। এদিন কোম্পানিটির ২০ কোটি ৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসা মুন্নু জুট স্টাফলার্সের ১৯ কোটি ৩৭ লাখ টাকার এবং ১৫ কোটি ২৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে উঠে আসে স্কয়ার ফার্মা।

ডিএসইর সার্বিক লেনদেনে উঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছেÑ সিনো বাংলা, লিগ্যাসি ফুটওয়্যার, স্টাইলক্রাফট, জেএমআই সিরিঞ্জ, ফরচুন সুজ, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স এবং ইউনাইটেড পাওয়ার।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ১০১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৮৪৯ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৬২ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৭০টির, কমেছে ১৬২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০টির দর। ৩৫ কোটি ৬৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।