২০ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তথ্য অধিকার আইন অমান্য করায় ইউপি চেয়ারম্যান সাময়িক বরখাস্ত

নিজস্ব সংবাদদাতা, পাবনা, ১৮ সেপ্টেম্বর ॥ তথ্য অধিকার আইন অমান্য করে তথ্য সরবরাহে বিঘœ সৃষ্টির মাধ্যমে ক্ষমতার অপব্যবহার ও অসদাচারণের অভিযোগে সদর উপজেলার ভাঁড়ারা ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাইদ খানকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-সচিব মোঃ ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী স্বাক্ষরিত একটি প্রজ্ঞাপনে এই সিদ্ধান্ত সংশ্লিষ্ট সকল দফতরে পাঠানো হয়েছে। বুধবার প্রজ্ঞাপন প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভাঁড়ারা ইউপি সচিব সেলিম আহমেদ। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, যেহেতু তথ্য প্রদানে বিঘœ সৃষ্টির মাধ্যমে ক্ষমতার অপব্যবহার এবং অসদাচারণের বিষয়টি তথ্য কমিশনের তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় জনস্বার্থে তার দ্বারা ইউনিয়ন পরিষদের ক্ষমতা প্রয়োগ সমীচীন নয় বলে সরকার মনে করে। ভাঁড়ারা ইউপি সচিব সেলিম আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মৃত স্বামীর স্ত্রী পরিচয়ের প্রত্যয়নপত্র চেয়ে ইউনিয়ন পরিষদে আবেদন করেন এক নারী। তার পরিচয়ের বিষয়টি নিশ্চিত হতে প্রত্যয়নপত্র দিতে দেরি হয়। পরে ওই নারী তথ্য অধিকার আইনে আবেদন করার পর বিষয়টি জানিয়ে তথ্য কমিশনে অভিযোগ করেন।

শুনানি শেষে তথ্য কমিশন ইউনিয়ন পরিষদের বক্তব্যে সন্তুষ্ট না হওয়ায় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ করেন।

বাঘায় অপহৃত মাদ্রাসাছাত্রী উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ বাঘায় অপহৃত দুই শিক্ষার্থীর মধ্যে মঙ্গলবার রাতে এক মাদ্রাসাছাত্রীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এর আগে এই মামলার প্রধান আসামির খালা সাজেদা বেগমকে আটক করে পুলিশ। সাজেদার বাড়ি নাটোরের লালপুর উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামে। তার স্বামীর নাম সাজেদুল ইসলাম। বাঘা থানা পুলিশ জানায়, গত ১৩ সেপ্টেম্বর উপজেলার কলিমগ্রাম এলাকার দশম শ্রেণীর এক ছাত্রী বাড়ি ফেরার পথে অপহরণের শিকার হয়। লালপুর উপজেলার খানপুর গ্রামের সাজাহানের ছেলে মিলন (২০) তাকে অপহরণ করে। এ ঘটনায় ১৫ সেপ্টেম্বর বাঘা থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করে ওই ছাত্রীর বাবা। অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার সকালে এ মামলায় সাজেদাকে (৩০) আটক করে বাঘা থানা পুলিশ। এরপর সন্ধ্যায় তার স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে উপজেলার খানপুর এলাকার একটি ফাঁকা রাস্তা থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করা হয়।