১৭ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভারতের সঙ্গে যুদ্ধে জড়ালে পাকিস্তান নিশ্চিহ্ন হবে ॥ কিষান রেড্ডি

ভারতের সঙ্গে যুদ্ধে জড়ালে পাকিস্তান নিশ্চিহ্ন হবে ॥ কিষান রেড্ডি

অনলাইন ডেস্ক ॥ ভারতের সঙ্গে যুদ্ধে জড়ালে বিশ্বের মানচিত্র থেকে পাকিস্তানের নাম মুছে ফেলা হবে বলে হুমকি দিয়েছেন ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জি কিষান রেড্ডি।

রবিবার অন্ধ্র প্রদেশের কাকিনাড় শহরে ‘এক জাতি, এক সংবিধান’ শীর্ষক ‘জনজাগরণ’ সভায় ভাষণ দেওয়ার সময় এ কথা বলেন তিনি। আলোচনা সভায় তিনি সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের কারণ ব্যাখ্যা করেন।

এনডিটিভি অনলাইনের খবরে জানা যায়, জি কিষান রেড্ডি হুঁশিয়ার করে বলেছেন, ‘যদি কোনো যুদ্ধ হয়, তবে পাকিস্তান আর বিশ্ব মানচিত্রে থাকবে না। দেশটি নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। ইমরান খান বা পাকিস্তান সেনাবাহিনীর ফাঁকা বুলিতে কাউকে ভয় দেখানোর কিছু নেই। ভারতের প্রধানমন্ত্রী ভয় পাওয়ার মানুষ নন।’

কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভারতের বর্তমান সরকার দেশের সার্বভৌমত্ব এবং অখণ্ডতা রক্ষায় কাজ করছে। এ সরকারকে তিনি দেশপ্রেমিক বলে আখ্যায়িত করেছেন। তিনি জোর দিয়ে বলেন, সময় এলে পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের ব্যাপারে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

৩৭০ ধারা বাতিল করে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা রদ করা হলেও রাজ্যে একটি গুলিও চলেনি, একটিও কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করা হয়নি, এমনকি একটি প্রাণও ঝরেনি উল্লেখ করে রেড্ডি বলেন, ‘এটি একটি গর্বের বিষয়।’ তিনি জানান, ৭০ বছর ধরে ৩৭০ ধারা কার্যকর ছিল। তখন এটি কেবল সন্ত্রাসবাদ, বিচ্ছিন্নতাবাদ এবং পাকিস্তানপন্থী নানা বিষয়ের জন্ম দিয়েছে।

১৯৯০ সাল থেকে সন্ত্রাসবাদের কারণে জম্মু ও কাশ্মীরে প্রায় ৪২ হাজার মানুষ নিহত হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন রেড্ডি। তিনি বলেন, দারিদ্র্য, বেকারত্ব, সন্ত্রাসবাদ, রক্তপাত, কারফিউ, বোমা বিস্ফোরণ—৭০ বছরে রাজ্যে এ ছাড়া আর কিছুই ঘটেনি। কাশ্মীরে ৬৫ হাজার সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ঘটেছে। ৩৫ হাজার একে রাইফেল জব্দ করা হয়েছে। এখানে না ছিল শিক্ষা, না ছিল কোনো ধরনের নিরাপত্তা।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আরও বলেন, লাখো কাশ্মীরি পণ্ডিত আর হিন্দুকে জম্মু ও কাশ্মীর থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। হাজার হাজার মন্দির ভেঙে ফেলা হয়েছে।

৭০ বছর পর ৩৭০ ধারা বাতিল করে জম্মু ও কাশ্মীরকে ভারতের মূল ভূখণ্ডের সঙ্গে একীভূত করা হয়েছে। রেড্ডি জিজ্ঞেস করেন, ‘ইমরান খান কোন মুখে ৩৭০ ধারা নিয়ে কথা বলতে এসেছেন?’