১৯ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ঈশ্বরদী ইপিজেড এর এমজিএল শ্রমিকদের আন্দোলন

ঈশ্বরদী ইপিজেড এর এমজিএল  শ্রমিকদের আন্দোলন

স্টাফ রিপোর্টার রিপোর্টার ॥ ঈশ্বরদী ইপিজেড এর চুল উৎপাদনকারী জাপানী প্রতিষ্ঠান এমজিএল-১ ও এমজিএল-২ তে দোভাষী জিয়াউর রহমান, সহকারী ব্যবস্থাপক প্রশাসন লাবনী ও ব্যবস্থাপক প্রশাসন মাহবুব আলীর নানা অনিয়ম ও দূর্নীতির কারণে শ্রমিকরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে। সি এল ছুটি প্রদান ও দোভাষী জিয়াউর রহমানের পরিবর্তনসহ নানা প্রকার দাবি আদায়ের লক্ষ্যে শ্রমিকরা গত দু’দিন থেকে কারখানায় আন্দোলন শুরু করেছে। ইতিমধ্যে তারা কারখানার চেয়ার টেবিল ভাংচুর করেছে।

শ্রমিকরা সোমবার কাজ বন্ধ করে কারখানার বাহিরে অবস্থান নিয়ে বিভিন্ন দাবি সম্বলিত শ্লোগান দেয়। রবিবারও তারা কাজ বন্ধ করে কারখানার বাইরে আন্দোলন করে শ্লোগান দেয়। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে কর্তৃপক্ষ ওইদিন দুপুরে শ্রমিকদের ছুটি দেয়। সোমবার আবারও কারখানায় একই অবস্থার সৃষ্টি হলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে। কাজ বন্ধ রেখে কারখানার বাইরে আন্দোলনে অংশ নেওয়া শ্রমিকরা সাংবাদিকদের অভিযোগ করে জানান,দোভাষী ও প্রশাসন বিভাগের কর্মকর্তারা নানাভাবে শ্রমিকদের হয়রানী করে থাকে। ইচ্ছা মাফিক শ্রমিক ছাঁটাই করে থাকে।

নামাজ পড়তে গেলেও নামাজ ঘর থেকে বের করে দেওয়া হয়। তারা কোম্পানি কর্তৃক চার বছরের ইএল ছুটির টাকা প্রদান,ইচ্ছামাফিক শ্রমিক ছাঁটাই ও শ্রমিকদের সাথে দূর্ব্যবহার বন্ধ করা,নামাজ ঘরে নামাজ পড়ার পরিবেশ সৃষ্টি করাসহ নামাজ পড়ায় বাধা না দেওয়া, ওভার টাইমের টাকা কেটে না নিয়ে সঠিকভাবে প্রদান করাসহ শ্রমিকদের ন্যায্য দাবি পুরণের অনুরোধ জানায়। শ্রমিকদের এসব ন্যায্য দাবি পুরণ করা না হলে কঠোর আন্দোলনের ডাক দেওয়ারও হুঁসিয়ারি উচ্চারণ করেন আন্দোলনরত শ্রমিকরা। এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত কারখানার মালিক ও কর্মকর্তাদের মধ্যে সৃষ্ট সমস্যা নিয়ে অফিস কক্ষে রুদ্ধদার বৈঠক চলছিল।