১৯ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সান্তাহারে বাল্যবিয়ে পন্ড করে দিলেন ইউএনও

সান্তাহারে বাল্যবিয়ে পন্ড করে দিলেন ইউএনও

নিজস্ব সংবাদদাদা, সান্তাহার ॥ বগুড়ার সান্তাহারে বাল্য বিয়ে এবং বিয়ের সব আয়োজন পন্ড করে দিয়েছেন আদমদীঘি উপজেলা নির্বাহী অফিসার। শুধু তাই নয়, কনের মা এবং স্বজনদের নিকট থেকে আদায় করেছেন প্রায় অর্ধলাখ টাকার জমিানা। এতে করে বাল্যবিবাহের অভিশাপ থেকে রক্ষা পেয়েছে নবম শ্রেনীর এক স্কুল ছাত্রী (১৫) ।

ভ্রাম্যমান আদালত আসার খবর পেয়ে পালিয়ে যায় বরযাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার দুপুরে সান্তাহার শহরতলীর জাহানাবাজ গ্রামে। জানা গেছে, বাল্য বিয়ের খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ,কে,এম আব্দুল্লা বিন রশিদ ওই গ্রামের কনে বাড়িতে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান পরিচালনা করে বাল্যবিয়ের সব আয়োজন পন্ড করে দেন। এসময় ভ্রাম্যশান আদালত কনের মায়ের ১০ হাজার এবং বিয়ের আয়োজনের সাথে সংশ্লিষ্ট স্বজন ৭ জনের ৫ হাজার টাকা হারে জরিমানা ধার্য করে তা তাৎক্ষনিক ভাবে আদায় করেন।

ভ্রাম্যমান আদালতের হাকিম ও উপজেলা নির্বার্হী অফিসার আবদুল্লাহ বিন রশিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন, ওই গ্রামের বাসিন্দা প্রবাসি শহিদুল ইসলামের মেয়ে নবম শ্রেণির ছাত্রীর সাথে একই গ্রামের আনিসুর রহমানের ছেলে সোহেল রানার (২৫) বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা চলছে এমন নিশ্চিত খবর পেয়ে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। ভ্রাম্যমান আদালত আসার সংবাদ পেয়ে বর ও বরের বাবাসহ বরযাত্রীরা বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে পালিয়ে যায়।

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করার সময় আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মোছা. নাহিদা সূলতানা ও উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার জাহিদুল ইসলাম ।