১৭ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জঙ্গী হানার মোকাবিলায় ভারত সরকারের অবস্থানও পরিবর্তন হয়েছে

জঙ্গী হানার মোকাবিলায় ভারত সরকারের অবস্থানও পরিবর্তন হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক ॥ বিমান বাহিনী দিবসেও ফিরে এল পুলওয়ামা হামলার ক্ষত। স্মরণ করালেন বায়ুসেনা প্রধান আরকেএস ভাদৌরিয়া। পুলওয়ামার ঘটনা শিক্ষা দিয়েছে যে, প্রতিরক্ষার সঙ্গে যুক্ত সবাইকে সব সময় সতর্ক থাকতে হবে— মন্তব্য বিমান বাহিনী প্রধানের। বালাকোট প্রসঙ্গ টেনে তাঁর বক্তব্য, ওই ঘটনাই প্রমাণ করে জাতীয় নিরাপত্তা ও সন্ত্রাস দমন প্রশ্নে নীতি বদল করেছে সরকার। বায়ুসেনাকে শুভেচ্ছা, অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে শাসক-বিরোধী দলের নেতা-মন্ত্রীরা।

আজ ৮ অক্টোবর বিমান বাহিনীর ৮৭তম প্রতিষ্ঠাদিবস। প্রতি বছরের মতো এ বারও দিল্লীর অদূরে উত্তরপ্রদেশের লোনি গাজিয়াবাদ এলাকায় হিন্ডন এয়ারবেসে দিনটিকে উদযাপন করছে বিমান বাহিনী । রয়েছেন তিন বাহিনীর শীর্ষ পদাধিকারীরা। এশিয়ার সবচেয়ে বড় এই বায়ুসেনা ঘাঁটিতে এ দিন বিমান বাহিনীর বিভিন্ন বিভাগের নানা প্রদর্শনী হয়। সেনা জওয়ান, অফিসারদের মেডেল দিয়ে সম্মানিত করেন বিমান বাহিনী প্রধান।

এই অনুষ্ঠানেই ভাদৌরিয়া বলেন, ‘‘প্রতিরক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলির বিপদের কথা আমাদের স্মরণ করিয়ে দিয়েছে পুলওয়ামার জঙ্গী হামলা। এ বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি জম্মু-শ্রীনগর হাইওয়ে দিয়ে যাওয়ার সময় পুলওয়ামায় সিআরপিএফ ক্যাম্পে আত্মঘাতী বিস্ফোরণ ঘটায় জঙ্গীরা। হামলায় ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ানের মৃত্যু হয়। প্রাথমিক তদন্তে উঠে আসে হামলার পিছনে পাক জঙ্গী গোষ্ঠীর নাম। সেই ঘটনার পরেই ১৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের বালাকোটে ঢুকে জঙ্গী ঘাঁটিতে হামলা চালায় বিমান বাহিনী ।

বিমান বাহিনী প্রধানের বক্তব্যে উঠে এসেছে সেই ঘটনার কথাও। তিনি বলেন, “সেটা ছিল সন্ত্রাসের ষড়যন্ত্রকারীদের শাস্তি দেওয়ার জন্য রাজনৈতিক নেতৃত্বের কঠোর মনোভাবের ফলশ্রুতি। জঙ্গী হানার মোকাবিলায় সরকারের অবস্থানও পরিবর্তন হয়েছে।

ফ্রান্সের সঙ্গে ৩৬টি যুদ্ধবিমান কিনতে ৫৯০০০ কোটি টাকার চুক্তি করেছে ভারত। আজই প্রথম সেই রাফাল যুদ্ধবিমান হাতে পাচ্ছে ভারত। তার জন্য ফ্রান্সে রয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। আনুষ্ঠানিক হস্তান্তর পর্ব আজ হলেও ৩৬টির মধ্যে প্রথম ব্যাচের চারটি রাফাল বিমান বাহিনীর হাতে আসবে আগামী বছরের মে মাসে।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা