১৬ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মার্সেল-বিএসপিএ স্পোর্টস কার্নিভালে জনকণ্ঠের মুখ উজ্জ্বল করবেন কারা?

মার্সেল-বিএসপিএ স্পোর্টস কার্নিভালে জনকণ্ঠের মুখ উজ্জ্বল করবেন কারা?

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বছর ঘুরে আবার আয়োজিত হতে যাচ্ছে ‘মার্সেল-বিএসপিএ স্পোর্টস কার্নিভাল’। এবার ৯টি ডিসিপ্লিনে ১৭টি ইভেন্টে খেলা আয়োজিত হবে। সবকটি ডিসিপ্লিনের খেলা বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম কমপ্লেক্সে অনুষ্ঠিত হবে।

এবার এই আয়োজনের কলেবর খানিকটা বেড়েছে। গতবারের চেয়ে এবার দু’টি নতুন ডিসিপ্লিন যুক্ত হয়েছে এই আয়োজনে। সেগুলো হলো ম্যারাথন এবং বিএসপিএ সদস্যদের সন্তানদের সাঁতার। অন্যান্য ডিসিপ্লিনগুলো হলো : ক্যারম (একক এবং দ্বৈত), টেবিল টেনিস (একক এবং দ্বৈত), ব্যাডমিন্টন (একক এবং দ্বৈত), দাবা, সাঁতার, শট পুট, শূটিং এবং আরচ্যারি। ১০ দিনব্যপী এই আয়োজনে অংশ নেবেন বিএসপিএ’র ১৩২ সদস্য।

৯ ডিসিপ্লিনের রেটিং পয়েন্টের ভিত্তিতে কার্নিভালের সেরা ক্রীড়াবিদকে আব্দুল মান্নান লাডু ট্রফির (বিএসপিএ স্পোর্টসম্যান অব দ্য ইয়ার) জন্য মনোনীত করা হবে। এছাড়া সেরা দু’জন রানারআপও পাবেন ¯^ীকৃতি। প্রত্যেক ডিসিপ্লিনের বিজয়ীদের জন্য আকর্ষণীয় পুরস্কারের ব্যবস্থা তো থাকছেই। স্পোর্টস কার্নিভালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় পল্টনস্থ আইভি রহমান সুইমিং পুলে অনুষ্ঠিত হবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ওয়ালটন গ্রæপের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন)।

এ উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন গ্রæপের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এমএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন)। বিএসপিএ’র সাধারণ সম্পাদক সুদীপ্ত আহমদ আনন্দ’র সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএসপিএ’র সিনিয়র সহসভাপতি পরাগ আরমান, বিএসপিএ’র ক্রীড়া উপ-কমিটির চেয়ারম্যান কাজী শহিদুল আলম এবং সদস্য সচিব মজিবুর রহমান।

এ নিয়ে চতুর্থবারের মতো আয়োজিত হতে যাচ্ছে বিএসপিএ স্পোর্টস কার্নিভাল। প্রথমবার অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৪ সালে। তারপর এক বছর বিরতি দিয়ে ২০১৬, ২০১৭ ও সর্বশেষ ২০১৮ সালে অনুষ্টিত হয়েছিল এই আসরটি। এই স্পোর্টস কার্নিভালে এ পর্যন্ত দৈনিক জনকণ্ঠের দুজন প্রতিযোগী পুরস্কার জিতেছেন। একজন মিথুন আশরাফ। তিনি ২০১৮ আসরে প্রিয় ডটকমের শান্ত মাহমুদকে সঙ্গে নিয়ে জিতেছিলেন ক্যারম দ্বৈতের শিরোপা। অন্যজন হলেন রুমেল খান। তার সাফল্যের পাল্লা বেশ ভারী। এ পর্যন্ত তিনি পুরস্কার লাভ করেছেন ৭টি। এগুলো হলো : ২০১৪ সালে টেবিল টেনিস এককে চ্যাম্পিয়ন, ২০১৬ সালে টেবিল টেনিস এককে চ্যাম্পিয়ন, ২০১৬ সালে টেবিল টেনিসে দ্বৈতে চ্যাম্পিয়ন, ২০১৭ সালে টেবিল টেনিস এককে চ্যাম্পিয়ন, ২০১৭ সালে টেবিল টেনিস দ্বৈতে চ্যাম্পিয়ন, ২০১৮ সালে টেবিল টেনিস এককে তৃতীয় স্থান এবং ২০১৮ সালে টেবিল টেনিসে দ্বৈতে চ্যাম্পিয়ন।

ক্রীড়ালেখক সমিতির খেলাধুলার ইতিহাসে অনন্য দুটি কীর্তির মালিক রুমেল। তা হলোÑ যেকোন নির্দিষ্ট একটি একক ইভেন্টে (টেবিল টেনিস) টানা তিন বছর শিরোপা জিতে হ্যাটট্রিক করার প্রথম কৃতিত্ব অর্জন এবং আরেকটি হলো যেকোন দ্বৈত ইভেন্টে (টেবিল টেনিসে) সর্বপ্রথম ও সর্বাধিক তিনবার বা হ্যাটট্রিক শিরোপা জেতা (ডাবলস পার্টনার মাহমুদুন্নবী চঞ্চল, বর্তমানে দৈনিক বাংলাদেশের খবরের স্পোর্টস রিপোর্টার)।

এখন দেখার বিষয়, এবারের বিএসপিএ স্পোর্টস কার্নিভালে জাহিদুল আলম জয়, মামুন রশীদ, গোলাম মোস্তফা, মিথুন আশরাফ, শাকিল আহমেদ মিরাজ, চঞ্চল ঘোষ এবং রুমেল খান ... এই সাতজনের কারা কারা দৈনিক জনকণ্ঠের মুখ উজ্জ্বল করতে পারেন।

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া