১৬ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিপিসি ৪২ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে

  • সিস্টেম লস সর্বনিম্ন পর্যায়ে রাখার সিদ্ধান্ত

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ সিস্টেম লস জ্বালানি সেক্টরের জন্য নিয়মিত একটি অনুষঙ্গ। এ সিস্টেম লসের বিপরীতে তেল চুরির ঘটনাও অন্তর্নিহিত রয়েছে। সরকার নিয়ন্ত্রিত জ্বালানি তেল আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের (বিপিসি) অঙ্গ প্রতিষ্ঠান পদ্মা, মেঘনা ও যমুনা অয়েল কোম্পানির মাধ্যমে আমদানির যে জ্বালানি তেল দেশজুড়ে সরবরাহ করা হয় এতে বড় ধরনের সিস্টেম লসের ঘটনা বহু আগে থেকেই ঘটে আসছে। বিপিসি কর্তৃপক্ষ এবার জ্বালানি তেল পরিমাপ ও সরবরাহ সংক্রান্ত প্রচলিত পদ্ধতির আধুনিকায়নের লক্ষ্যে চট্টগ্রামের প্রধান স্থাপনাসহ তেল কোম্পানিগুলোর দেশজুড়ে সবল ডিপোর অপারেশনাল কার্যক্রম অটোমেশনাল প্রক্রিয়ায় নিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এতে করে সঠিক পরিমাপ নিশ্চিতকরণসহ সিস্টেম লস সর্বনিম্নে থাকবে বলে কর্তৃপক্ষ ঘোষণা দিয়েছে।

বিপিসির বর্তমান চেয়ারম্যান শামসুর রহমান এ ব্যাপারে উদ্যোগী ভূমিকা নিয়ে তা বাস্তবায়নের কাজে যথাযথ কার্যক্রম গ্রহণ করেছে।

বিপিসি সূত্র জানায়, তিন তেল কোম্পানির মাধ্যমে জ্বালানি তেল সরবরাহ নিশ্চিত ও নিরাপত্তায় বর্তমানে ৪২ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে বিভিন্ন ধরনের প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে। এর মধ্যে রয়েছে মাদার ভেসেলজুড়ে আমদানিকৃত অপরিশোধিত তেল বহির্নোঙ্গর থেকে পাইপ লাইনের মাধ্যমে চট্টগ্রামের পতেঙ্গার ইস্টার্ন রিফাইনারিতে পরিবহনের জন্য এসপিএম প্রকল্প, ঢাকা-চট্টগ্রাম পাইপ লাইন প্রকল্প, কুর্মিটোলা-কাঞ্চন ব্রিজ, রূপগঞ্জ পর্যন্ত জেট-এ-১ পাইপ লাইন প্রকল্প ইস্টার্ন রিফাইনারির দ্বিতীয় ইউনিট প্রকল্প এবং বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী পাইপ লাইন প্রকল্প উল্লেখযোগ্য। বিপিসি কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যে এর আওতাধীন অঙ্গ প্রতিষ্ঠানের নিকট থেকে পাওনা বাবদ ৭ হাজার ৫শ’ কোটি টাকা আদায় করেছে। গত এক বছরে প্রতিষ্ঠানটির আয় বৃদ্ধি হয়েছে এক হাজার কোটি টাকারও বেশি।

সূত্র জানায়, জনবল কাঠামো অনুযায়ী বিপিসির আওতাধীন কোম্পানিসমূহে নির্ধারিত ৫ হাজার জনবলের বিপরীতে সাড়ে ৪ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী এ সেক্টরকে সফলতার সঙ্গে চালিয়ে যাচ্ছে। কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যে এর নিজস্ব জায়গায় অর্থাৎ চট্টগ্রামের জামালখান এলাকায় একটি আধুনিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র চালু করেছে। এছাড়া আমদানির জ্বালানি তেল জাহাজ থেকে খালাস, পরিবহন, ট্যাঙ্কে রিসিভ পরিমাপসহ যাবতীয় কাজে সর্বক্ষণিক মনিটরিং ব্যবস্থা কার্যকর করেছে। এর পাশাপাশি জামালখান এলাকায় বিপিসির নিজস্ব ভবন নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

নির্বাচিত সংবাদ