২০ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এসএম সুলতানের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

রিফাত-বিন-ত্বহা, নড়াইল থেকে ॥ শুধু রংতুলির স্পর্শে তিনি সৌন্দর্য্য অন্বেষণ করেননি, বাস্তবেও প্রমাণ দিয়েছেন ভালবাসার। তাই ঢাকার ফুটপাথ থেকে দুর্লভ নাগলিঙ্গম বৃক্ষনিধন হতে দেখে তার চোখ প্লাবিত হয়েছিল। বলতেন, এতো একটি বৃক্ষের নিঃশেষ নয়, গোটা জীবনের পরিসমাপ্তি। সেই মহান মানুষটি হলেন শিল্পী এসএম সুলতান। পুরো নাম শেখ মোহাম্মদ সুলতান। তবে, নড়াইলবাসীর কাছে তিনি ‘লাল মিয়া’ হিসেবে সমধিক পরিচিত। আজ ১০ অক্টোবর বৃহস্পতিবার। বিশ্ববরেণ্য চিত্রশিল্পী এস এম সুলতানের ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী। ১৯৯৪ সালের এই দিনে অসুস্থ অবস্থায় যশোর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। প্রিয় জন্মভূমি নড়াইলের চিত্রাপাড়ের কুড়িগ্রামে তাকে শায়িত করা হয়। এই গুণীশিল্পী ১৯২৪ সালের ১০ আগস্ট নড়াইলের মাছিমদিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মেছের আলী। মা মাজু বিবি। এ বছরও শিল্পী সুলতানের ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী। উপলক্ষে জেলা প্রশাসন নানা কর্মসূচী পালন করছে। বিশ্ববরেণ্য এই শিল্পীর জন্ম-মৃত্যুবার্ষিকী সরকারীভাবে পালন এবং সুলতান কমপ্লেক্স ঘিরে পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তোলার দাবিও রয়েছে উপেক্ষিত।

রাজমিস্ত্রি বাবার সংসারে দরিদ্রতার মাঝেও ১৯২৮ সালে নড়াইল ভিক্টোরিয়া কলেজিয়েট স্কুলে লেখাপড়া শুরু করেন শেখ মোহাম্মদ সুলতান। স্কুলের অবসরে বাবাকে কাজে সহযোগিতা করার সময় ছবি আঁকতে শুরু করেন। এ সময় তার আঁকা ছবি স্থানীয় জমিদারদের দৃষ্টি আকর্ষণ হয়। রাজনীতিক ও জমিদার শ্যামাপ্রাসাদ মুখোপাধ্যায় ১৯৩৩ সালে নড়াইলের জমিদার ব্যারিস্টার ধীরেন রায়ের আমন্ত্রণে ভিক্টোরিয়া কলেজিয়েট স্কুল পরিদর্শনে গেলে তার একটি পোট্রেট আঁকেন পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র এসএম সুলতান।

জেলা প্রশাসক আন্জুমান আরা জানান, জেলা প্রশাসনের আয়োজনে আজ সকালে শিল্পীর কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ, জিয়ারত, দেয়া মাহফিল, কোরানখানি, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা এবং আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে।

নির্বাচিত সংবাদ