১৬ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অ্যাভেঞ্জারস কোন সিনেমাই নয় -মার্টিন স্করসেজি

  • রিফাত কান্তি সেন

হলিউড ছবি দেখেন আর মার্ভেল স্টুডিওর ছবিগুলোর নাম শুনেননি এমন লোক খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। পৃথিবীজুড়ে মার্ভেল স্টুডিওর ছবি নিয়ে ঘটেছে নানা তুলকালাম কা-। ভক্তদের হৃদয়ে সেসব সিনেমা দোলা ও দিয়েছিল। সারা বিশে^র মানুষের মুখে মুখে সিনেমাগুলোর প্রশংসা পেতেও আমরা দেখেছি। ‘থ্যানোস’, ‘আয়রনম্যান’, ‘থর’ মার্ভেলের বেশ জনপ্রিয় চরিত্র। মার্বেলের সাম্প্রতিক ছবি ‘এ্যাভেঞ্জারস : এন্ডগেম’ মুক্তির সময় সেটা আবারও বোঝা গিয়েছিল। বিশে^র সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশে ও ছবির টিকেট কেনার ধুম পড়েছিল। রাতারাতি টিকেট বিক্রিও হয়ে গিয়েছিল। তাহলে তো বোঝাই যায় ভক্তরা ছবিটিকে খুব গুরুত্ব সহকারেই নিয়েছিলেন। ছবিটি বেশ উৎসাহ আর উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে চলেছে সিনেমা হলগুলোতে। বেশ আলোচনার ঝড় তোলা ‘এ্যাভেঞ্জারস’ নিয়ে বিস্ফোরক এক মন্তব্য করে বসলেন বিখ্যাত চলচ্চিত্রকার মার্টিন স্করসেজি। ছবিগুলোকে সিনেমার খাতা থেকেই নাম কেটে দিলেন তিনি। সম্প্রতি একটি সংবাদ মাধ্যমে দেয়া সাক্ষাৎকারে স্করসেজি বলেন, আমি ছবিগুলো দেখিনি। তবে চেষ্টা করেছি। ওগুলো কিন্তু সিনেমা নয়। তিনি বলেন, ‘সত্যি বলতে কী তারা ভালই বানিয়েছে। অভিনেতারাও ভাল অভিনয় করেছে। কিন্তু এটা আসলে থিম পার্ক। এগুলো মানুষকে নিয়ে বানানো কোন সিনেমা নয়, যা একজনের আবেগ- অনুভূতি ও মানসিক অভিজ্ঞতা আরেকজনের কাছে পৌঁছে দেয়।’ মন্তব্যটি করার পরই হলিউডে এখন তা নিয়ে চলছে বেশ আলোচনা সমলোচনা। সিনেমা ভক্তরা চটেছেন তাঁর ওপর। আবার যারা বলতে গিয়ে ও কথাটি বলতে পারেননি, তাঁদের কাছে কিন্তু এখন ভালই লাগছে। বিষয়টি নিয়ে টুইটার ও বেশ সরগরম। আর হবেই বা না কেন কথাটি যখন একজন বিখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতার মুখ দিয়ে বের হয় তখন বুঝে নিতেই হবে যে আলোড়িত এক ঘটনা এটি। গ্লোবাল বক্স অফিসে সর্বকালের সর্বোচ্চ আয়ের সিনেমার তকমা পেয়েছে এ্যাভেঞ্জারস। এমনকি ৩০ টি সর্বোচ্চ আয়ের সিনেমার মধ্যে আটটি ছবিই সুপারহিরো ঘরানার।

১৯৪২ সালের ১৭ নবেম্বর জন্ম নেয়া স্করসেজি হলিউডের জনপ্রিয় একজন পরিচালক। হতে চেয়েছিলেন যাজক কিন্তু ভাগ্য তাকে টেনে এনে বসিয়েছেন বিখ্যাত পরিচালকের কাতারে। এটাই সত্য যে এখনও বেঁচে আছেন এমন পরিচালকের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হচ্ছেন হলিউডের এই ড্রিম বয় মার্টিন। ২০০৭ সালের ঘটনা কেবার সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ সিনেমা পরিচালক নির্বাচনের জন্য ভোটের আয়োজন করে টোটাল ম্যাগাজিন। সেই ভোটে কিংবদন্তি পরিচালক আলফ্রেড হিচককের পরেই দ্বিতীয় যার নাম আসে তিনি হলেন মার্টিন স্করসেজি। দ্য এভিয়েটর, ট্যাক্সি ড্রাইভার, রেজিং বুল, দ্য ডিপার্টেড, গুডফেলাস, শাটার আইল্যান্ড ইত্যাদি বিখ্যাত ছবির পরিচালক তিনি।

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া