১৬ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বরদেশ্বরীতে শারদীয় নাট্যোৎসব

  • অপূর্ব কুমার কুণ্ডু

একজন কীর্তিমান ব্যক্তি চিরতরে চলে গেলে প্রতিনিধিত্বশীল ব্যক্তিরা বলেন, এই শূন্যস্থান পূরণ হওয়ার নয়। আরও বলেন, আমরা তার সক্ষমতাকে পুরোপুরি কাজে লাগাতে পারিনি। যাকে কেন্দ্র্র করে বলা সে নেই বলে শোনা হয় না আর যারা শুনল তাদের কিছু করণীয় থাকে না কেননা যার জন্য করব সে তো আর নেই। এভাবেই চলছে শূন্যতা আর পূর্ণের দোলা। অথচ কে না জানে হোয়াইট হাউজে প্রেসিডেন্ট এফ কেনেডিকে প্রেসিডেন্টের চেয়ারে বসা দেখে শিশু বিল ক্লিনটনের ইচ্ছা হয়েছিল ওই চেয়ারে বসা। বসেও ছিলেন অনেক বছর পরে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়ে। এই সৎসঙ্গ এবং লক্ষ্য নির্ধারিত হওয়াটাই বড় কথা। এমনই একটি লক্ষ্যের বাস্তবায়ন হয়েছে গত ৪ অক্টোবর শুক্রবার পড়ন্ত বিকেলে শ্রীশ্রী বরদেশ্বরী কালীমাতা মন্দির প্রাঙ্গণে শারদীয় নাট্যোৎসবে ফেরদৌসী মজুমদার বেস্ট স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার প্রদানের মধ্য দিয়ে। সবুজবাগ-রাজারবাগে অবস্থিত অভয় বিনোদিনী উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে থেকে নৈতিক-চারিত্রিক-সাংস্কৃতিক-খেলাধুলা-পড়াশোনা-সামাজিক দায়িত্ববোধ প্রভৃতি ক্ষেত্রে দৃষ্টান্তমূলক সক্ষমতার আলোকে বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বিবেচনায় বেস্ট স্টুডেন্ট পেলেন উত্তরীয়, ক্রেস্ট এবং অর্থ সম্মানী বাবদ নগদ পঁচিশ হাজার টাকা। সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী, আইটিআইএর সাম্মানিক সভাপতি রামেন্দু মজুমদার, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, শারদীয় নাট্যোৎসবের প্রবক্তা ও আহ্বায়ক লায়ন চিত্তরঞ্জন দাসের উপস্থিতিতে বেস্ট স্টুডেন্ট এবং তার বাবা-মায়ের হাতে নিজের নামাঙ্কিত এ্যাওয়ার্ড নিজেই তুলে দিলেন স্বয়ং লিজেন্ড অভিনেত্রী ফেরদৌসী মজুমদার। অভিনয় জগতে তিনি নিজে যেমন অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত তেমনি তাঁর উজ্জ্বল উপস্থিতি এবং হৃদয় উচ্চারিত সংলাপ প্রেরণা যোগাবে ভবিষ্যত বাংলাদেশে হয়ে উঠতে এক একটি উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

দৃষ্টান্তের মতো ঘটনা না ঘটলে কোন কিছুই মনে জায়গাও পায় না, মনেও থাকে না। যেমন এবার মনে জায়গা পাচ্ছে গুলশান-বনানী সার্বজননীন পূজা ফাউন্ডেশন কারণ তারা আর্ট ক্যাম্প আয়োজনের পাশাপাশি দেশের বারোজন ব্যক্তিত্বকে (মরণোত্তরসহ) সম্প্রীতির এ্যাওয়ার্ড প্রদান করেছেন। আর স¤্রাট আকবরের প্রধান সেনাপতি রাজা মানসিংহের স্মৃতিবিজরিত গঙ্গাসাগর দীঘিতে অবস্থিত শ্রীশ্রী বরদেশ্বরী কালীমাতা মন্দিরে ১৯৯৫ সাল থেকে লায়ন চিত্তরঞ্জন দাসের নির্দেশনা অভিনয়ের মধ্য দিয়ে যে নাট্যোৎসবের যাত্রা সেখানে এবারে ৪ অক্টোবর থেকে ৮ অক্টোবর পর্যন্ত ছিল পাঁচ দিনে দুটি করে ১০ নাট্যদলের ১০ নাটক নিয়ে পাঁচ দিনব্যাপী শারদীয় নাট্যোৎসবের আয়োজন।

আয়োজন বলি আর বাস্তবতা বলি, আকাশে সূর্য থাকলেই সকল সময় তার আলোক প্রদান একই রকম না। প্রভাতে ¯িœগ্ধতা, দুপুরে খরতাপ, বিকেলে গোধূলি বেলা। যৌবনে অভিনেত্রী ফেরদৌসী মজুমদার, সৈয়দ শামসুল হকের লেখা কাব্য নাটক পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায় নাটকে মাতব্বরের কন্যা হয়ে যেভাবে ঝড় তোলেন বাস্তবতার নিরিখে আজ আর তা সম্ভব নয়। কিন্তু নাট্যোৎসবে দর্শক এবং মঞ্চে অন্য চরিত্রে অভিনয়রত ফেরদৌসী মজুমদার দেখলেন এক প্রজন্মের ত্যাগকে অপর প্রজন্মের প্রতিনিধি হয়ে কিভাবে শ্রদ্ধা-ভালবাসায় এবং চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় মাতব্বরের কন্যা হয়ে তেজে, ক্রোধে এবং জিঘাংসায় আলোর রোশনাই ছড়ালেন অভিনেত্রী ত্রপা মজুমদার। মুক্তি নাটকের নির্দেশক এবং পায়ের আওয়াজ পাওয়া যায় নাটকের মাতব্বরের কন্যা অভিনেত্রী ত্রপা মজুমদারের অভিনয় বাস্তবতা মিলিয়ে দিল কোর্ট মার্শাল নাটকে এসএম সোলায়মান উচ্চারিত কথা, আমরা প্রত্যেকেই ঐতিহ্যের উত্তরাধিকারী।

নারী জীবনের বঞ্চনার উত্তরাধিকারী চরিত্র হয়ে বেদনার কথা বললেন কহে বিরাঙ্গনা নাটকে জ্যোতি সিনহা। নিত্য পুরানে মাসুম রেজা দেখালেন বঞ্চনার আনন্দ কত নির্মম। জয়িতা মহলানবিস দেখালেন, কালীদাস নাটকে ভাঙ্গনের কিনারে দাঁড়িয়ে কিভাবে গড়া যায়। ময়ূর সিংহাসন নাটক অভিনেতা মামুনুর রশীদ দেখালেন, উৎসবকেন্দ্রিক এই নাট্যচর্চা বাঁচিয়ে রাখাটা কত বেশি প্রয়োজন। স্বপ্নদলের জাহিদ রিপন দেখাবেন, প্যান্টেমাইমের আঙ্গিকে আলিফ লায়লার আলাদিনের নিরন্তন অবগাহন। বাংলা আমার বাংলা ও সেই সব দিনগুলো নাটকে লাকী ইনাম কন্যা হৃদি হক দেখালেন, ফোক এবং মডার্নের যৌথ নান্দনিক কম্বিনেশন। এইচ আর অনিক তন্ত্রমন্ত্র নাটকে হাসাতে হাসাতে কাদালেন এবং কাঁদতে কাঁদতে হাসালেন কারণ কেনা জানে হাসপাতালে জন্মের শুভ আগমন থাকে আবার চিরতরে চলে যাওয়াও থাকে।

অনিকেত সন্ধ্যা নাটকে অভিনেতা তৌফিকুর রহমান বার্ধক্যবেলার যন্ত্রণাকে তুলে ধরলেন অশ্রু নয়ন বেদনায়। লায়ন চিত্তরঞ্জন দাসের এজন মুন্সীর পোস্টার নাটকে নির্মল সমাজ নির্মাণের স্বপ্নের বুনন। শারদীয় নাট্যোৎসবের আহ্বায়ক লায়ন চিত্তরঞ্জন দাসের অভিব্যক্তি, অভিনেত্রী ফেরদৌসী মজুমদার নাট্যোৎসবে প্রেরণা যোগালেন, রামেন্দু মজুুমদার উৎসবে স্বীকৃতি দিলেন, সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী বর্তমানের মতোই সম্ভাবনাময় ভবিষ্যত নির্মাণে তার সহযোগিতার হাত বরাবরের মতো বাড়িয়ে দিলেন, অভিনেতা মামুনুর রশীদ সেমিনার ও বিদেশী দলের অংশগ্রহণের কথা ব্যক্ত করলেন।

ফলে শারদীয় নাট্যোৎসব সফল মঞ্চায়ন নিয়ে আমরা যেমন এই মুহূর্তে গর্বিত তেমনি আগামীতে আরও বৃহত্তর পরিসরে শারদীয় নাট্যোৎসবের আয়োজন এখন নাট্যানুরাগীদের প্রাণের দাবি।