২০ অক্টোবর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভিনগ্রহে পাড়ি জমাবে না মানুষ

  • নোবেল জয়ী মিশেল মেয়র

পৃথিবীর বাইরের কোন গ্রহে মানুষ বাস করতে পারবে না। কারণ ওই সব গ্রহ পৃথিবী থেকে অনেক দূরে অবস্থিত। এছাড়া ওই সব গ্রহ মানুষের বাসযোগ্য নয়। চলতি বছর পদার্থ বিজ্ঞানে নোবেল জয়ী ৭৭ বছর বয়সী সুইস পদার্থবিদ মিশেল মেয়র বুধবার এসব কথা বলেন। খবর এএফপির।

এতদিন অনেক বিজ্ঞানী বলতেন যে, পৃথিবী মানুষের বসবাসের অনুপযোগী হয়ে গেলে অন্য গ্রহে গিয়ে বাস করা যাবে-সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মেয়র বলেন, এখন ওসব মতবাদ ছুড়ে ফেলার সময় এসেছে। মহাবিশ্বের বিবর্তনবিষয়ক গবেষণা ও দূরবর্তী একটি গ্রহ আবিষ্কারের কৃতিত্বের জন্য এ বছর অপর তিন বিজ্ঞানীর সঙ্গে যৌথ নোবেল পান মিশেল মেয়র। তিনি বলেন, আমরা পৃথিবীর বাইরের অপর কোন গ্রহ নিয়ে সচরাচর কথা বলি। তবে এক্ষেত্রে আমার কথা পরিষ্কার-ওই গ্রহে আমরা বাস করতে পারব না। বুধবার স্পেনের রাজধানী মাদ্রিকে এক অনুষ্ঠানের ফাঁকে মিশেল মেয়রের এই সাক্ষাতকার নেয়া হয়। তিনি বলেন, ওই সব গ্রহ পৃথিবী থেকে অনেক অনেক দূরে অবস্থিত। তার যুক্তি কোটি কোটি দিন ধরে চেষ্টার ফলে আমাদের এই পৃথিবী বাসযোগ্য হয়েছে। তাই এই পৃথিবীকে আমাদের অবশ্যই যতœ নিতে হবে। অন্যান্য গ্রহের তুলনায় আমাদের এই পৃথিবী এখনও সুন্দর ও বাসযোগ্য রয়েছে। তাই ভিনগ্রহে বসবাসের ধারণাকে পুরোপুরি ‘খ্যাপাটে চিন্তা’ বলে মত দেন মিশেল মেয়র। সুইজারল্যান্ডের জেনেভা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মিশেল মেয়র ১৯৪২ সালে জন্মগ্রহণ করেন। আশির দশকের শেষ দিকে তিনি চোখ রাখতে শুরু করেন আকাশে। দক্ষিণ ফ্রান্সের হাউট অবজারভেটরি থেকে ১৯৯৫ সালে তিনি প্রথমবারের মতো সৌরজগতের বাইরে কিন্তু মিল্কিওয়ের ভেতরে একটি গ্রহ খুঁজে বের করেন, যা সূর্যের মতো একটি নক্ষত্রকে প্রদক্ষিণ করছে। সৌরজগতের বৃহস্পতিবার মত আকারের ওই গ্রহের নাম দেয়া হয় ‘৫১ পেগাসি বি’। রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস বলছে, মেয়র তার সহযোগীদের নিয়ে যে পদ্ধতিতে গ্রহ খুঁজতে শুরু করেছিলেন, তা ছিল এক যুগান্তকারী আবিষ্কার। এর পর থেকে মিল্কিওয়েতে প্রায় চার হাজার গ্রহ খুঁজে পেয়েছেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা।