১৫ নভেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জাবিতে আন্দোলনকারী এবং ভিসিপন্থীদের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি

জাবিতে আন্দোলনকারী এবং ভিসিপন্থীদের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি

জাবি সংবাদদাতা ॥ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের অপসারণ দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ‘দুর্নীতির বিরুদ্দে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।অন্যদিকে চলমান উপাচার্য বিরোধী আন্দোলনকে বিশ্ববিদ্যালয়কে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র দাবি করে ‘অন্যায়ের বিরুদ্ধে এবং উন্নয়নের পক্ষে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে মৌন মিছিল ও সংহতি সমাবেশ কর্মসূচী পালন করেছে উপাচার্যপন্থী শিক্ষক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা।

আজ বুধবার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার সংলগ্ন সড়ক থেকে চার শতাধিক শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারির অংশগ্রহণে উপাচার্যপন্থীদের মৌন মিছিল শুরু হয়। মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে গিয়ে সংহতি সমাবেশের মধ্যদিয়ে শেষ হয়।

সমাবেশে শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারিরা বলেন, উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে দুর্নীতির কল্পিত অভিযোগ এনে বিশ্ববিদ্যালয়কে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র চলছে। উন্নয়ন যাতে ব্যাহত না হয় এজন্যই তারা এই প্ল্যাটফর্মের পিছনে দাড়িয়েছে।

এসময় বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল মান্নান চৌধুরী বলেন, “বাংলাদেশ সরকার বর্তমান উপাচার্যকে প্রায় ১,৪৪৫ কোটি টাকা দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নের জন্য। আমরা অন্যায়ের বিরোধীতা করবো এবং উন্নয়নের পক্ষে কাজ করবো। কোনো ষড়যন্ত্রকারীর মাধ্যমে যদি বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্প বাধাগ্রস্ত হয় তাহলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার তা মেনে নিবেনা।”

সমাবেশে ‘অন্যায়ের বিরুদ্ধে এবং উন্নয়নের পক্ষে জাহাঙ্গীরনগর’ এর মুখপাত্র অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আলমগীর কবিরের সঞ্চালনায় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক অজিত কুমার মজুমদার, অধ্যাপক হানিফ আলী, অধ্যাপক সুফি মোস্তাফিজুর রহমান, সহযোগী অধ্যাপক বারতা চক্রবর্তী, সহকারী অধ্যাপক শারমিন জামান, অফিসার সমিতির সভাপতি মো. আবু হাসান প্রমূখ বক্তব্য রাখেন ।

এদিকে উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে নৈতিক স্খলন ও দুর্নীতির অভিযোগ এনে তার অপসারণ দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

দুপুর সাড়ে ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদ ভবনের সামনে থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক ও ভবন প্রদক্ষিণ করে মুরাদ চত্ত্বরে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়।

মিছিল পরবর্তী সমাবেশে অধ্যাপক আনোয়ারুল্লাহ ভূঁইয়া বলেন, ‘উপাচার্য ও তার পরিবার দুর্নীতিবাজ। তার আশেপাশের শিক্ষকরা দুর্নীতি ঢাকতে মাঠে নেমেছেন। দল বড় করলেই দুর্নীতি ধামাচাপা পড়ে যায় না। উপাচার্যের বিরুদ্ধে দুর্নীতির এত বড় অভিযোগ আসার পর তার আর এ পদে থাকার কোন নৈতিক অধিকার নেই।’