১৫ নভেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিবেকের তাড়নায় মেনন সত্য কথা বলতে শুরু করেছেন ॥ রিজভী

বিবেকের তাড়নায় মেনন সত্য কথা বলতে শুরু করেছেন ॥ রিজভী

অনলাইন ডেস্ক ॥ বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘গত এক দশকে দেশে দুর্নীতি, অনাচার, দুর্বৃত্তায়ন এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে, চরিত্রহীন ও সুবিধাবাদীরা আওয়ামী লীগকে মনে করছে টাকা বানানোর হাতিয়ার। আওয়ামী জাহেলিয়াতের আমলে অবস্থা এতটাই বিপর্যয়কর যে, একজন উপাচার্য নিজের পদের চেয়ে যুবলীগের নেতা হওয়াকে বেশি গৌরবজনক মনে করেন।

আজ রবিবার দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘এক সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিরা রাষ্ট্রপতি হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন। আর এখন তারা যুবলীগের সভাপতি হওয়ার স্বপ্ন দেখেন। কতটা নির্লজ্জ, নির্বোধ ও দলকানা হলে ভিসির মতো পদ ছেড়ে তিনি যুবলীগের সভাপতি হতে চান।’

রিজভী দাবি করেন, ‘গণভবনের আনুকূল্য একজন উপাচার্যকে কতটা রুচিহীন, অমার্জিত ও অসংস্কৃত করে তুলতে পারে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মীজানুর রহমান তার উদাহরণ। একনায়কতন্ত্রের যুগে আমাদের রাষ্ট্র, সমাজ ও চিন্তা-চেতনায় যে পচন ধরেছে, তার প্রমাণ একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের আকাঙ্ক্ষা।’

বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘নতুন সম্রাট হতে তিনি (মীজানুর রহমান) খুবই আগ্রহী। তিনি যোগ্য ছিলেন যুবলীগের হাতুড়ি বাহিনীর নেতা হওয়ার। তাকে করা হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। দীর্ঘদিনের শ্রদ্ধা-সম্ভ্রমের এই পদটিকে কলঙ্কিত করছেন তিনি।’

নিশিরাতের সরকারের সঙ্গী রাশেদ খান মেনন যে কোনও কারণেই হোক, এবার নিজের মুখে সত্যটি স্বীকার করেছেন বলে মন্তব্য করেন রিজভী।

বিবেকের তাড়নায় মেনন সত্য কথা বলতে শুরু করেছেন উল্লেখ করে রিজভী বলেন, ‘হয়তো কয়েকদিন পর ওবায়দুল কাদের ও হাছান মাহমুদরাও বলবেন এই কথাগুলো।’

বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নামে ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে একটি স্বার্থান্বেষী মহল বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য ও বানোয়াট তথ্য পোস্ট করছেন বলেও জানান রিজভী।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুল ইসলাম হাবিব, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এবিএম মোশারেফ হোসেন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আউয়াল, নির্বাহী সদস্য আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।