২০ নভেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্লেড দিয়ে রক্তাক্ত করে স্কুলছাত্রীকে নির্যাতন

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্লেড দিয়ে রক্তাক্ত করে স্কুলছাত্রীকে নির্যাতন

অনলাইন রিপোর্টার ॥ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ধর্ষণের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে পাশবিক নির্যাতন চালিয়েছে দুই বখাটে। এসময় ওই ছাত্রীর হাত ও পা ব্লেড দিয়ে কেটে দেয় তারা। রবিবার সন্ধ্যায় উপজেলার ছোট কুড়িপাইকা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পরে আহত অবস্থায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে দু'জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, রবিবার বিকেলে ওই ছাত্রীর বাবা তার মাকে ডাক্তার দেখাতে আখাউড়া শহরে যান। এ সুযোগে একা ঘরে পেয়ে ওই ছাত্রীর হাত-পা বেঁধে মুখে কাপড় গুঁজে দিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এতে ব্যর্থ হয়ে তারা

হাত ও পায়ে ব্লেড দিয়ে কেটে রক্তাক্ত করে। পরে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে প্রথমে আখাউড়া হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। গুরুতর অবস্থা হওয়ায় তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

ওই ছাত্রীর বাবা বলেন, আমি আমার স্ত্রীকে নিয়ে বিকেলে ডাক্তার কাছে যাই। বাড়িতে আমার মেয়ে একা ছিল। এ সুযোগ নিয়ে পাষণ্ডরা আমার মেয়ের উপর বর্বর নির্যাতন চালায়। তিনি আরও বলেন, কয়েক দিন আগে পাশের আনোয়ারপুর গ্রামের কাজলের সাথে আমার ঝগড়া হয়। সে আমাকে হুমকি দিয়েছিল আমার মেয়েকে মেরে ফেলবে। কাজল বর্তমানে জেলে রয়েছে।

আখাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রসুল আহমেদ নিজামী বলেন, এ বিষয়ে থানায় মামলা হয়েছে। অভিযান চালিয়ে এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ উপজেলার আনোয়ারপুর গ্রামের মোশারফ (৩৫) ও বেলালকে (৩৫) গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা আনোয়াপুর গ্রামের মাদক ব্যবসায়ী কাজলের সহযোগী।

নির্বাচিত সংবাদ