১৮ নভেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এই সরকারকে বিদায়ে রক্ত দিয়ে স্বাক্ষর করে শপথ নিতে হবে : রব

এই সরকারকে বিদায়ে রক্ত দিয়ে স্বাক্ষর করে শপথ নিতে হবে :  রব

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জনগণের অধিকার আদায়ে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জেএসডির সভাপতি আ স ম আবদুর রব। তিনি বলেন, শুধু আবরার হত্যার সুষ্ঠু বিচারের দাবি নয়, এই সরকারকে বিদায়ে রক্ত দিয়ে স্বাক্ষর করে শপথ নিতে হবে। বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য গড়ে সরকারকে বিদায় করবো।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সড়কে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আয়োজিত বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যার বিচারের দাবিতে ‘রক্তের অক্ষরে সত্যের স্বাক্ষর’ কর্মসূচীর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি আঙুল থেকে রক্ত বের করে ব্যানারে স্বাক্ষর করেন। এতে ফ্রন্টের শরিক নেতারা বক্তব্য রাখেন।

এসময় বর্তমান সরকারের উদ্দেশে রব বলেন, কত রক্ত চাই আপনাদের? রক্তের বন্যায় ভেসে যাবে সব অন্যায়। যত রক্ত চান, দেবো। তবে জনগণের অধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে। সরকারি দল থেকে বলা হচ্ছে আবরারের বিচারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তাহলে আমরা আন্দোলন করছি কেন? আবরারের বিচার হয়নি। কবে হবে কেউ জানে না।

তিনি আরও বলেন, গতকাল এক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে। কিছুদিন আগে এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানকে পানিতে ফেলে দিয়েছে ছাত্রলীগ। এভাবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলোকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দেয়া হচ্ছে। যা সচেতন নাগরিক হিসেবে আমরা কখনই মেনে নিতে পারি না।

জেএসডির সভাপতি বলেন, এই সরকার জনগণের সব অধিকার হরণ করেছে। তারা পুলিশ দিয়ে, গুন্ডা দিয়ে আন্দোলন দমন করে। আর বলে আন্দোলন করতে পারে না, বক্তব্য দিতে পারে না। স্বৈরাচারি পন্থায় ক্ষমতায় থাকবেন? বাংলাদেশ ব্রিটিশ আমল থেকে কেউ এই পন্থায় ক্ষমতায় বেশিদিন থাকতে পারেনি, আপনিও পারবেন না। আপনাদেরকেও ক্ষমতা ছেড়ে দিতে হবে।

আ স ম রব বলেন, সরকারের সমর্থকরা শুধু আবরারকে খুন করেনি, তারা জনগণের অধিকার খুন করেছে, গণতন্ত্র হরণ করেছে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে খুন করেছে। এখনও খুন করছে তারা।

ছাত্রলীগকে খুনি লীগ মন্তব্য করে রব বলেন, এই ছাত্রলীগ এখন ছাত্রলীগ নাই। তারা খুনি লীগ হয়ে গেছে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালিয়েছে। প্রতিটি স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে এই ছাত্রলীগের টর্চার সেল আছে।

এ সময় তিনি বিএনপি প্রধান খালেদা জিয়া মুক্তি দাবি করে রব বলেন, শেখ হাসিনা বলেছেন ছাত্রলীগ তাদের অঙ্গসংগঠন নয়। ছাত্রলীগ-যুবলীগ যদি আপনারদের অঙ্গসংগঠন না হয় তাহলে গণভবনে কী করে কমিটি ঘোষণা করেন, এর উত্তর দেন।

কর্মসূচীতে আরও উপস্থিত ছিলেন গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক রেজা কিবরিয়া, কার্যকরী সভাপতি আবু সাইয়েদ, জেএসডির সিনিয়র সহ-সভাপতি তানিয়া রব প্রমুখ।