১৫ নভেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পাঁচবিবি মডেল কমপ্লেক্স নির্মাণে দুর্নীতির অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, জয়পুরহাট, ৮ নবেম্বর ॥ জনমত উপেক্ষিত ও জনবিচ্ছিন্ন স্থানে পাঁচবিবি উপজেলা মডেল মসজিদ কমপ্লেক্স নির্মাণ বন্ধ করে জনবান্ধব স্থানে মসজিদ নির্মাণের দাবিতে পাঁচবিবি উপজেলা নাগরিক কমিটি শুক্রবার জয়পুরহাট প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন। সাংবাদিক সম্মেলনে পাঠ করেন নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক একেএম মাহবুবুর রহমান টুকু। তিনি জানান, সরকারের উপজেলাভিত্তিক মডেল মসজিদ কমপ্লেক্স প্রকল্পের আওতায় জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলায় মসজিদ নির্মাণের স্থান জনমত উপেক্ষিত স্থানে গোপনভাবে করার বিষয়টি জানাজানি হলে আমরা নাগরিক কমিটির পক্ষ থেকে বিষয়টি ধর্ম মন্ত্রণালয় ও সংসদ সদস্য সামছুল আলম দুদু মহোদয়কে লিখিতভাবে জানিয়েছি। ধর্ম মন্ত্রণালয়ে আবেদনের প্রেক্ষিতে মন্ত্রণালয় থেকে জেলা প্রশাসককে বিষয়টি তদন্ত করে রিপোর্ট দেয়ার নির্দেশ দেন। সরকারের ১৫ কোটি টাকা ব্যয় নির্ধারিত পাঁচবিবি উপজেলা মডেল মসজিদ নির্মাণের জন্য ৪৩ শতক জমি নির্ধারণ করে সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজিবুল আলম, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান গং অতিরিক্ত মূল্য দিয়ে ওই জায়গা ক্রয় করায় সরকারের প্রায় দেড় কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে। পাঁচবিবি-জয়পুরহাট সড়কের পাঁচবিবি পৌর এলাকায় পরিত্যক্ত টেক্সটাইল মিলের জায়গায় মডেল মসজিদটি নির্মাণ করলে যা হাজার হাজার মুসল্লিদের নামাজ আদায়সহ ধর্মীয় কার্যক্রম চালানো সহায়ক হবে। কিন্তু সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা বিষয়টি অবজ্ঞা করে তার কার্যক্রম চালিয়ে গেছে। সরকারের দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের সময় মসজিদের মতো একটি স্পর্শকাতর ধর্মীয় স্থাপনা নির্মাণে এ অনৈতিক কার্যক্রম তদন্তের জন্য পাঁচবিবি নাগরিক কমিটি দুর্নীতি দমন কমিশনের মহাপরিচালক বরাবর একটি আবেদন ৬ নবেম্বর ২০১৯ সালে প্রেরণ করেছেন। সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পাঁচবিবি আওয়ামী লীগের বর্ষীয়ান নেতা কাদের ব্যাপারী, জেলা আওয়ামী লীগের নেতা মীর রেজাউল করিম, জয়পুরহাট জেলা পরিষদের সদস্য মামুনুর রশিদ মন্ডল, পাঁচবিবি উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা দেওয়ান সিরাজুল ইসলামসহ প্রায় ২ শতাধিক এলাকাবাসী সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া