১৫ নভেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নগদ অর্থ চাল খাবার আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত ॥ চলছে মাইকিং

নগদ অর্থ চাল খাবার আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত ॥ চলছে মাইকিং

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, পটুয়াখালী ॥ ধেয়ে আসছে প্রবল ঘুর্ণিঝড় বুলবুল। আর এর প্রভাবে শুক্রবার সন্ধ্যার পর থেকে ভারি বর্ষণ শুরু হয়েছে। উপকূলের সারপাড়ের কলাপাড়া উপজেলার সর্বত্র মাইকিং চলছে। সাত নম্বর সঙ্কেত দেখিয়ে যাওয়ার প্রচারে মানুষ ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে উঠেছে। সিডর-আইলা, মহাসেন, সবশেষ ফণীর তান্ডবের পরে ফের প্রবল ঘুর্ণিঝড় বুলবুল ধেয়ে আসার খবরে গোটা উপজেলা তিন লক্ষাধিক মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে।

বিশেষ করে কৃষকরা সবচেয়ে বেশি শঙ্কিত হয়ে পড়েছে। আর কিছুদিন পরে আমনের বাম্পার ফলন ঘরে তোলার স্বপ্নে এরা বিভোর ছিল। এসময় ঝড়-জলোচ্ছ্বাস আঘাত হানলে সব লন্ডভন্ড হয়ে যাবে। এমন শঙ্কা সকল মানুষের। এদিকে রাত আট টায় বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী কলাপাড়ার সকল সরকারি বেসরকারি সংস্থার কর্মকর্তাসহ জনপ্রতিনিধিদের সমন্বয়ে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে ঘুর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবেলায় এক প্রস্তুতি সভা করেছেন। পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরী সভাপতিত্ব করেন।

সভায় জানানো হয়েছে কলাপাড়ায় শনিবার সকাল থেকে বিপদাপন্ন মানুষকে আশ্রয় কেন্দ্রে নেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় নগদ অর্থ, চাল, শুকনো খাবার, ঢেউটিন, কম্বল মজুদ রাখা হয়েছে। আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে পর্যাপ্ত খাবার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। শৃঙ্খলায় আইন-প্রয়োগকারী সংস্থা সর্বদা কাজ করবে। কলাপাড়ায় রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির ১৫৮ ইউনিটের ২৩৭০ সদস্যকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। নৌবাহিনীর জাহাজ পর্যন্ত প্রস্তুত রাখার কথা জানালেন বিভাগীয় কমিশনার। জানা গেছে, রাত আটটায় পায়রা সমুদ্র বন্দর থেকে ঘুর্ণিঝড়টি ৪৯০ কিলোমিটার দুরে সাগরবক্ষে অবস্থান করছে। ঘুর্ণিঝড়টি শনিবার বিকেল থেকে সন্ধে নাগাদ কলাপাড়ার উপকূলে আঘাত হানার আশঙ্কা করছেন রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির সহকারী পরিচালক মো. আসাদুজ্জামান খান।

নির্বাচিত সংবাদ