০৯ নভেম্বর ২০১৯

আবার আলো ছড়াবেন কারবার!

 আবার আলো ছড়াবেন কারবার!

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ স্বপ্নের মতো কেটেছিল ২০১৬ সাল। সে বছরেই ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র্যান্ডস্লাম জয়ের স্বাদ পেয়েছিলেন এ্যাঞ্জেলিক কারবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের মাধ্যমে সেরেনা উইলিয়ামসকে পরাজিত করে। এরপর ইউএস ওপেনেও চ্যাম্পিয়ন। শুধু তাই নয়, রিও অলিম্পিকের ফাইনালেও জায়গা করে নিয়েছিলেন তিনি। একই বছরে বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থানটাও দখল করে নিয়েছিলেন স্টেফিগ্রাফের এই উত্তরসূরি। কিন্তু পারফর্মেন্সের সেই ধারাবাহিকতা আর ধরে রাখতে পারেননি জার্মানির এই তারকা খেলোয়াড়।

বিশেষ করে চলতি মৌসুমে টেনিস কোর্টে একেবারেই বাজে সময় কেটেছে এ্যাঞ্জেলিক কারবারের। কোন গ্র্যান্ডস্লাম টুর্নামেন্টের শিরোপা জয় তো দূরের কথা ফাইনালেরই টিকেট কাটতে পারেননি তিনি। এ মৌসুমে গ্র্যান্ডস্লামে তার সেরা ফলাফল চতুর্থ রাউন্ড। মৌসুমের প্রথম মেজর টুর্নামেন্ট অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের চতুর্থপর্বের টিকেট কাটতে সক্ষম হয়েছিলেন তিনি। এর পরের তিন মেজর টুর্নামেন্টে কারবারের ফলাফল আরও ভয়াবহ। ফ্রেঞ্চ ওপেনের প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নেন জার্মান তারকা। যা সাবেক নাম্বার ওয়ান তারকার জন্য লজ্জাজনক। উইম্বলডনের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন হিসেবে এবার কোর্টে নেমেছিলেন কারবার। সমর্থকরাও তাকে নিয়ে আশায় বুক বেঁধেছিলেন। কিন্তু হায়! এখানেও সেই লজ্জাজনক পারফর্মেন্স। দ্বিতীয় রাউন্ড থেকেই ছিটকে যান তিনি। মৌসুমের শেষ মেজর টুর্নামেন্ট ইউএস ওপেনের ফলাফলও লজ্জা থেকে মুক্তি দিতে পারেনি কারবারকে। ইউএস ওপেন থেকেও প্রথম রাউন্ডেই বিদায়।

২০১১ সালের পর এমন বাজে পারফর্মেন্স আর কখনই দেখা যায়নি এ্যাঞ্জেলিক কারবারের। তার লজ্জাজনক পারফর্মেন্সের প্রভাব পড়েছে র‌্যাঙ্কিংয়েও। সর্বশেষ প্রকাশিত বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের ২০ নম্বরে অবস্থান করছেন জার্মান তারকা। তথাপি হাল ছাড়ছেন না এ্যাঞ্জেলিক কারবার। নতুন মৌসুমের শুরুতেই আবারও কোর্টে নামার ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। শুরুটা করবেন ব্রিসবেন ইন্টারন্যাশনাল টেনিস টুর্নামেন্ট দিয়ে। ষষ্ঠবারের মতো এই আসরে খেলার কথা জানিয়েছেন কারবার। যে বছরটা তার ক্যারিয়ারের স্বর্ণালি বলে স্বীকৃত। সেই ২০১৬ সালের সূচনাটা করেছিলেন এই ব্রিসবেন ইন্টারন্যাশনাল টেনিস টুর্নামেন্ট জিতেই। ফর্ম যখন খুব খারাপ ঠিক তখন সেই ব্রিসবেন দিয়েই মৌসুম শুরুর কথা দিলেন তিনি। জার্মান তারকা জানালেন এটাই তার মৌসুম সূচনার সেরা টুর্নামেন্ট। এ প্রসঙ্গে কারবার বলেন, ‘আমার জন্য ব্রিসবেন দিয়ে মৌসুমের শুরু করাটাই সবচেয়ে ভাল মনে হয়। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের মতো বড় টুর্নামেন্ট শুরুর আগে আপনাকে অবশ্যই এরকম ইভেন্ট খেলে নিজেকে প্রস্তুত করতে হবে। জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত এই টুর্নামেন্ট আমার জন্য দুর্দান্ত। এর আগে ব্রিসবেনের ফাইনাল খেলেছি আমি। প্যাট রাফটার এ্যারেনার আবহাওয়াও বিস্ময়কর। এখানে আবারও ফিরতে যাচ্ছি। নিজেকে দারুণ রোমাঞ্চিত মনে হচ্ছে।’

জার্মান-পোলীয় বংশোদ্ভূত এ্যাঞ্জেলিক কারবারের পেশাদার টেনিসে অভিষেক ঘটে ২০০৩ সালে। কিন্তু মাত্র তিন বছর বয়স থেকেই টেনিস খেলতে শুরু করেছিলেন তিনি। পরবর্তীতে কিশোরদের প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। জার্মানিতে খেলা শুরু করে ইউরোপের সর্বত্র অংশ নিতে থাকেন ধীরে ধীরে। কিন্তু ২০০৩ সালের পূর্ব-পর্যন্ত তিনি কোন শিরোপা লাভ করতে সক্ষম হননি। ১৫ বছর বয়সে পেশাদারী টেনিসের দিকে ধাবিত হন তিনি।