০৯ নভেম্বর ২০১৯

বিডিইউ’র ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে ভর্তির ফল প্রকাশ

বিডিইউ’র ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে ভর্তির ফল প্রকাশ

অনলাইন ডেস্ক ॥ গাজীপুরের কালিয়াকৈরে প্রতিষ্ঠিত দেশের প্রথম ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি, বাংলাদেশ (বিডিইউ) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীতে প্রথম বর্ষে ভর্তির ফলাফল প্রকাশ করেছে। ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ভর্তির জন্য ১০০ আসনের বিপরীতে ৪২৫৬ জন শিক্ষার্থী আবেদনপত্র জমা দিয়েছে। সেই হিসেবে প্রতি আসনে বিপরীতে আবেদন করেছে ৪২ জন শিক্ষার্থী।

আজ শনিবার (০৯-১১-২০১৯) সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র সিস্টেম এনালিস্ট মুহাম্মদ শাহীনূল কবীর মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূরের নিকট এই ফলাফল হস্তান্তর করেন। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি সংক্রান্ত ওয়েবসাইট (https://admission.bdu.ac.bd) এ এই ফলাফল প্রকাশ করা হয়।

ভর্তিচ্ছু আবেদনকারীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি সংক্রান্ত ওয়েবসাইট (http://admission.bdu.ac.bd) থেকে তাদের ফলাফল জানতে পারবেন। এছাড়া আবেদনকারীদের ভর্তি আবেদন ফরমে উল্লেখিত মোবাইল নাম্বারে এসএমএস এর মাধ্যমে তাদের ফলাফল জানিয়ে দেয়া হয়।

২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ন্যায় চলতি বছর ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষেও ভর্তিচ্ছু আবেদনকারীদের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে ভর্তির ফলাফল প্রকাশ করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি বিভাগ ইন্টারনেট অব থিংস এবং আইসিটি ইন এডুকেশন বিভাগে ৫০ জন করে মোট ১০০ জন শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য মনোনীত হয়েছে। তারমধ্যে দুটি বিভাগে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ০৪ (চার)জন এবং উপজাতী কোটায় ০২ (দুই) জন শিক্ষার্থীও রয়েছে।

মনোনীত আবেদনকারীরা আগামী ১১ নবেম্বর ২০১৯ থেকে ১৮ নবেম্বর ২০১৯ তারিখের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে গিয়ে আবেদন ফরম পুরণ ও নিদিষ্ট ফি জমা দিয়ে ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারবেন।

এর আগে গত ০১ অক্টোবর ২০১৯ থেকে ৩১ অক্টোবর ২০১৯ তারিখ পর্যন্ত ১০০ আসনের বিপরীতে মোট ৪২৫৬ জন শিক্ষার্থী (চার হাজার দুইশত ছাপ্পান্ন ) জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর জানান, ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে মোট ৪২৫৬ জন শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য আবেদন করেছে। তারমধ্যে ২১১৪ জন শিক্ষার্থীর এসএসসি ও এইচএসসি দুটোতেই জিপিএ ৫ রয়েছে। সেখান থেকে সর্বোচ্চ মেধার ভিত্তিতে ১০০ (একশত) জন আবেদনকারীকে ১ম মেধা তালিকায় ভর্তির জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে। আসন খালি থাকা সাপেক্ষে পরবর্তীতে একই ভাবে মেধার ভিত্তিতে ভর্তি করা হবে।