১৬ নভেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শতবর্ষী কুলসুমের ভাগ্যে এখনও মেলেনি বয়স্ক ভাতা !

স্টাফ রিপোর্টার, ময়মনসিংহ ॥ ফুলবাড়িয়া উপজেলার রাধাকানাই ধারদাস্তা গ্রামের শতবর্ষী কুলসুম বেওয়ার ভাগ্যে এখনও মেলেনি সরকারের বয়স্ক কিংবা বিধবার কোন ভাতা! বর্তমানে দিনমজুর জামাতা ইব্রাহীম খলিলের রাধাকানাই চৌরঙ্গীপাড়া গ্রামের বাড়িতে আশ্রয় নেয়া কুলসুম জীবদ্দশায় সরকারের এই ভাতা পেতে চান। বয়সের ভারে ন্যুব্জ কুলসুম বেওয়াকে চলাফেরাসহ ওঠবসে এখন আরেকজনের সাহায্য নিতে হচ্ছে। ছোট্ট ছাপরা ঘরের বাইরের উঠানে দিন দুপুরে শীতের কাথা মুড়িয়ে শুয়েছিলেন ফুলবাড়িয়া উপজেলার রাধাকানাই ইউনিয়নের কুলসুম বেওয়া। রাধাকানাই ধারদাস্তা গ্রামের দিনমজুর স্বামী আব্দুছ ছাত্তার মারা গেছেন গত ২৪ বছর আগে। তিন পুত্র আর চার মেয়ে বেঁচে আছেন। পুত্র সন্তানরা দেখভাল করে না বলে পালা করে থাকেন মেয়েদের বাড়িতে। শতবর্ষী কুলসুমের সঙ্গে দেখা হয় মেয়ে শামছুন নাহারের রাধাকানাই চৌরঙ্গীপাড়া গ্রামের বাড়িতে। দিনমজুর জামাতার সংসার চলে না, জেনেও থাকছেন কুলসুম-কারণ উপায় নেই। দাঁত নেই, চুলে পাক ধরেছে, তবে চোখে ভাল দেখতে পান কুলসুম। হাতে পায়ে বল নেই, চলাফেরা ও ওঠবসে সাহায্য নেন আরেকজনের। ছেলেরা থেকেও নেই। ‘বেঁচে আছি বলে পেট খাবার চায়। কিন্তু কারও কাছে হাত পাততে পারি না।