০৬ ডিসেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুরো হংকংয়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে দেয়ার পরিকল্পনা

হংকংয়ে মঙ্গলবার দিনের শুরুতে ব্যস্ত গণপরিবহনচালকরা বিপাকে পড়েন। সেখানে দ্বিতীয় দিনের ধর্মঘট অব্যাহত থাকায় গাড়িচালকদের অরাজকতার মুখে পড়তে হয়। তিনটি ইউনিভার্সিটিতে এদিন সরকারবিরোধী বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এদিন বন্ধ রাখা হয়। টাইম।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বিক্ষোভকারীরা ট্রেনের চলাচলের লাইন লক্ষ্য করে পেট্রোল বোমা ছুড়েছে। ফলে অনেক ট্রেন যাত্রী গাড়ি থেকে নেমে হেঁটে গন্তব্যের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। প্রধান প্রধান সড়ক ও মোড়গুলোতে ব্যারিকেড বসানো হয়েছে। বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে পুলিশ কাঁদানে গ্যাস ও রাবার বুলেট ছুড়লে তারাও পুলিশকে উদ্দেশ্য করে ইট পাটকেল ছোড়ে। রেল স্টেশনগুলোতে হাজার হাজার যাত্রী আটকা পড়ে। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় বহু ট্রেন স্টেশন থেকে যাত্রা শুরু করতে পারেনি। জানা গেছে, পুুলিশ পলিটেশনিক ইউনিভর্সিটির ক্যাম্পাসে ঢুকে এক ছাত্র নেতাকে মারধর করেছে। এই ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় সিটি ইউনিভর্সিটি ও চায়নিজ ইউনিভার্সিটিতেও বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। সিটি ইউনিভর্সিটির প্রধানের বাসায় ভাংচুর চালানো হয়েছে। পুরনো হংকং ইউনিভর্সিটির চারপাশে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সোমবার পুলিশের গুলিতে একজন নিহত ও কয়েকজন আহত পর থেকে সর্বশেষ এ সংঘর্ষ শুরু হয়েছে।

নির্বাচিত সংবাদ