০৬ ডিসেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিএনপি রাজনীতির পথ হারিয়ে গুজবের রাজনীতি করছে ॥ নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী

  বিএনপি রাজনীতির পথ হারিয়ে গুজবের রাজনীতি করছে ॥ নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম ॥ ‘বিএনপি এখন গুজব নির্ভর রাজনীতি করছে। এই পরিবারে যারা রাজনীতি করছে তারা বাংলাদেশকে বিপদে ফেলতে চায়। রাজনীতির পথ হারিয়ে তারা কখনো পিঁয়াজ, কখনো লবন এবং কখনো পরিবহন নিয়ে গুজবের রাজনীতি করছে।’ শুক্রবার সকাল ১১টায় কুড়িগ্রামের চিলমারী নৌবন্দর পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান বাংলাদেশকে খুনের জনপদে পরিনত করেছিলেন। তিনি সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর শতশত অফিসারকে হত্যা করেছিলেন। এরা একটি খুনি পরিবার। এ পরিবারের সাথে যারা রাজনীতি করে তারা বাংলাদেশকে বিপদে ফেলতে চায়। তাই তারা সঠিক রাজনীতি না করে বিপদগ্রস্থ রাজনীতির পথ ধরেছে। কখনও তারা পিয়াজ নিয়ে কখনও তারা লবন নিয়ে রাজনীতি করছে আবার কখনও পরিবহন নিয়ে রাজনীতি করছে। এরা এখন রাজনীতির গতি হারিয়ে ফেলেছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘চিলমারী নদী বন্দর একনেকে অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। আশা করছি আগামি ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যে প্রায় ৩শ’ কোটি টাকার অনুমোদন হয়ে গেলেই এখানে কার্যক্রম শুরু হয়ে যাবে। চিলমারী নদী বন্দরে মালামাল উঠানোর জন্য একটি বন্দর এবংং যাত্রী উঠানামার জন্য আরেকটি আলাদা বন্দর হবে বলে জানান।‘

তিনি আরো বলেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের প্রটোকল চুক্তি রয়েছে এছাড়াও ভুটানের সঙ্গে একটি প্রটোকলের আলোচনা চলছে। এজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী চিলমারী নদী বন্দরে একটি কাস্টমস অফিসের জন্য এনবিআরকে নির্দেশনা দিয়েছেন। এই রুটটি একটি আন্তর্জাতিক রুট হিসেবে চালু হবে। আমরা আশা করছি এই রুটটি চালু হয়ে গেলে এই এলাকার অর্থনীতিতে ব্যাপক ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটবে।

এসময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিকও গণ শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো: জাকির হোসেন, নৌ ও পরিবহন মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ভোলানাথ দে, জেলা প্রশাসক মোছা: সুলতানা পারভীন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও সাবেক এমপি মো: জাফর আলী, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিবুল ইসলাম খান প্রমুখ। নৌ ও পরিবহন প্রতিমন্ত্রী সকাল ৯টায় হেলিকপ্টারযোগে চিলমারী থানাহাট হ্যালিপ্যাডে নামেন। এরপর তিনি টেরেডেস হোমস ফাউন্ডেশনে জেলার দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন। পরে তিনি চিলমারী নদীবন্দর পরিদর্শনে যান।

নির্বাচিত সংবাদ