০৯ ডিসেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

২০ বছর পর হিমালয়ের দেশ থেকে আবারও সোনা জিততে চান জামালরা

২০ বছর পর হিমালয়ের দেশ থেকে আবারও সোনা জিততে চান জামালরা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শিরোপাজয়ের পথে সবচেয়ে বড় বাধা ভারত। এসএ গেমস ফুটবলে তারা এবার খেলবে, নাকি খেলবে না, এ নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা দূর হয়নি। তবে কে খেললো বা খেললো না, এ নিয়ে মাথা ঘামাতে নারাজ বাংলাদেশ ফুটবল দল। তারা চায় নিজেদের কাজটা ঠিকঠাক করতে। তাদের প্রাথমিক লক্ষ্য সেমিফাইনাল খেলা। দ্বিতীয় লক্ষ্য ফাইনালে খেলা, তৃতীয় ও শেষ লক্ষ্য স্বর্ণপদক জয় করা। এই লক্ষ্য নিয়েই বুধবার সকালে নেপালের উদ্দ্যেশে ঢাকা ছেড়েছে বাংলাদেশ দল। তবে কোচ জেমি ডে দলের সঙ্গে নেই। তিনি ইংল্যান্ড থেকে সরাসরি নেপালে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন।

গেমসের আগে মাত্র চার দিন প্রস্তুতির সময় পাচ্ছে বাংলাদেশ। কিন্তু কোচ জেমি ডের বাছাই করা এই দলটি বলতে গেলে জাতীয় দলই। দীর্ঘদিন ধরে একসঙ্গে খেলছে তারা। তাই নিজেদের মধ্যে পারস্পরিক বোঝাপড়াটাও খুব ভালো।

মজার ব্যাপার-এসএ গেমসে ফুটবলে বাংলাদেশ ১৯৯৯ সালে প্রথমবারের মতো সোনার পদক জিতেছিল এই নেপালের মাটিতেই! ২০ বছর পর আবারও ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি করার জন্য মুখিয়ে আছে তারা। তবে দলীয় অধিনায়ক জামাল ভুইয়া মাটিতেই পা রাখছেন, আমরা অবশ্যই ফাইনালের লক্ষ্য নিয়ে যাচ্ছি। তবে আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্য সেমিফাইনালে উঠা। অতীতেও আমরা নেপালে খেলেছি। তবে আগে যারা খেলে এসেছে তাদের থেকে বর্তমান দলটির সামর্থ্য বেশি।

বাংলাদেশ তাদের প্রথম ম্যাচটি খেলবে স্বাগতিক নেপালের বিপক্ষে। ১৯৯৯ সালে যাদের বিপক্ষে ফাইনালে জিতে প্রথম সোনা জিতেছিলো লাল-সবুজরা। ২০১০ সালে স্বর্ণজয়ের আসরটিতেও বাংলাদেশের যাত্রা শুরু হয়েছিলো গ্রুপ পর্বে নেপালকে হারিয়েই। তবে তখনকার নেপাল আর এখনকার নেপাল দলের মধ্যে অনেক তফাত আছে। বাংলাদেশ যেমন এগিয়েছে, তেমনি নেপালও পিছিয়ে নেই। তাই সেমিতে ওঠা খুব একটা সহজ হবে না লাল-সবুজ বাহিনীর জন্য।

গ্রুপ পর্বে স্বাগতিকদের মোকাবেলা করার পরই ভুটানের বিপক্ষে খেলতে হবে বাংলাদেশকে। তবে প্রতিপক্ষ যেই হোক না কেন, ফরোয়ার্ড নাবিব নেওয়াজ জীবন মনে করছেন তাদের এই দলের পক্ষে ফাইনালে খেলা সম্ভব, আমাদের দলটি একটি ভারসাম্যপূর্ণ দল। আমাদের মধ্যে ভালো বোঝাপড়া আছে। আমাদের এই দলের পক্ষে স্বর্ণজয় করে ফেরা সম্ভব। আমাদের লক্ষ্য থাকবে প্রথম ম্যাচটায় ভালো করা। আর সেটি করতে পারলে আমাদের আত্মবিশ্বাস বহুগুণে বেড়ে যাবে।

দলের ম্যানেজার সত্যজিত দাস রূপু বলেন, তারা দীর্ঘদিন ধরে এই কোচের অধীনে অনুশীলন করেছে। ফুটবলাররা নিজেদের ক্লাবে অনুশীলনের মধ্যেই ছিল। কাঠমান্ডুতে গিয়ে অনুশীলনে ফিটনেস নিয়ে আমরা আরও কাজ করবো।

কোচ জেমি ডে নেপালে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন আজ। যদিও ভারত বলছে তারা ফুটবল দল পাঠাবে না এসএ গেমসে। কিন্তু সূচীতে তাদের রাখা হয়েছে! বাংলাদেশ খেলছে গ্রুপ এ-তে। যেখানে তাদের সঙ্গী হয়েছে নেপাল ও ভুটান। বি-গ্রুপে আছে মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা ও ভারত।