০৬ ডিসেম্বর ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কপ-২৫ সম্মেলনে যোগ দিতে স্পেনের পথে প্রধানমন্ত্রী

কপ-২৫ সম্মেলনে যোগ দিতে স্পেনের পথে প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন রিপোর্টার ॥ জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত জাতিসংঘ ফ্রেমওয়ার্ক কনভেনশনের ২৫তম বার্ষিক সম্মেলনে যোগ দিতে তিন দিনের সফরে স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদের পথে রওনা হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ রবিবার সকাল সোয়া ১০টায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে তিনি স্পেনের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেন।

মাদ্রিদের স্থানীয় সময় বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে টোরেজন বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর।

বিশ্ব পর্যটন সংস্থায় বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও স্পেনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার সেখানে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাবেন। বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষে মোটর শোভাযাত্রা করে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে যাওয়া হবে মাদ্রিদের হোটেল ভিলা ম্যাগনায়। এই সফরে তিনি সেখানেই থাকবেন।

চিলির সভাপতিত্বে এবং স্পেনের সার্বিক সহযোগিতায় মাদ্রিদে ২ থেকে ১৩ ডিসেম্বর জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত জাতিসংঘ ফ্রেমওয়ার্ক কনভেনশনের ২৫তম বার্ষিক সম্মেলন (ইউএনএফসিসিসি) চলবে।

রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের অংশগ্রহণে এই সম্মেলন ‘কপ-২৫’ নামেই পরিচিত হচ্ছে। এবারের সম্মেলনে সভাপতিত্ব করবেন চিলির পরিবেশমন্ত্রী ক্যারোলিনা স্মিদভ জালদিভার।

সোমবার সকালে স্পেনের সর্ববৃহৎ প্রদর্শনী কেন্দ্র ফিরিয়া দা মাদ্রিদে এ সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

পরে তিনি কপ-২৫ এর ওয়ার্কিং সেশনে যোগ দেবেন এবং নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন।

দুপুরে আনুষ্ঠানিক মধ্যাহ্ন ভোজ শেষে বিকালে আবার ওয়ার্কিং সেশনে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। স্পেনের প্রেসিডেন্ট পেড্রো সানচেজের সঙ্গেও তার দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।

সন্ধ্যায় রাজ প্রাসাদে স্পেনের রাজা ও রানি আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন শেখ হাসিনা।

গত নবেম্বর মাসে ব্রাজিলে ‘কপ-২৫’ শুরু হওয়ার কথা থাকলেও দেশটির নতুন সরকার অর্থনৈতিক কারণ দেখিয়ে আয়োজনের প্রস্তাব প্রত্যাহার করে নেয়।

পরে স্বাগতিক দেশ হতে এগিয়ে আসে চিলি। কিন্তু তুমুল সরকারবিরোধী বিক্ষোভে বিপর্যস্ত চিলিও প্রস্তাব ফিরিয়ে নিতে বাধ্য হয়। তখন জাতিসংঘ, চিলি ও স্পেনের সমঝোতার ভিত্তিতে মাদ্রিদে এ সম্মেলন আয়োজনের সিদ্ধান্ত হয়।

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবের সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোর একটি বাংলাদেশ। বিশ্বে এ বিষয়ক আলোচনা ও দর কষাকষিতেও বাংলাদেশের উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে।

কপ-২৫ সম্মেলনে জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিপূরণ দিতে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর পক্ষ থেকে ঐক্যবদ্ধভাবে জোর দাবি জানানো হবে বলে গত সপ্তাহে সাংবাদিকদের জানান পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন।

তিন দিনের সরকারি সফর শেষে প্রধানমন্ত্রী আগামী মঙ্গলবার সকাল ৯টায় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে দেশের পথে রওয়ানা হবেন। বুধবার রাত ১২টা ৪০ মিনিটে তার ঢাকায় পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

নির্বাচিত সংবাদ