২২ জানুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

টঙ্গীর এনোনটেক্সের লামিছা স্পিনিং মিলে ভয়াবহ আগুন বিপুল ক্ষয়ক্ষতি

টঙ্গীর এনোনটেক্সের লামিছা স্পিনিং  মিলে ভয়াবহ আগুন বিপুল ক্ষয়ক্ষতি

নিজস্ব সংবাদদাতা, টঙ্গী ॥ বৃহস্পতিবার বিকালে টঙ্গীর ভাদাম এলাকায় এনোনটেক্সের শিল্প গোষ্ঠীর লামিছা স্পিনিং কারখানায় এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বিকাল ৪ টার দিকে লাগা আগুন সন্ধ্যা ৭টায় নিয়ন্ত্রণে এলেও ধোঁয়ার কু-লি দূর থেকে দেখা যাচ্ছিল। আগুনের ভয়াবহতা এতটাই বিস্তার লাভ করে যে, স্পিনিং মিলের পুরো এলাকা আগুনে গ্রাস করে। কারখানা কতৃপক্ষ স্থানীয় সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, আগুনে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান কয়েক শ’ কোটি টাকা ছাড়িয়ে যাবে। কারখানাটির পূর্ব-পশ্চিমে প্রায় ৩০০ মিটার এবং উত্তর-দক্ষিণে প্রায় ১০০ মিটার আয়তন বিশিষ্ট শেটের সমস্ত মালামাল-মেশিনপত্র আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ফায়ার সার্ভিস এবং কারখানা কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না আগুনের সূত্রপাত কোথা থেকে হয়েছে। টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের মূখপত্র আতিকুর রহমান জনকণ্ঠকে জানান, সর্বশেষ ঢাকা, টঙ্গী, গাজীপুরের ১১টি ফায়ার ইউনিট আগুন নেভানোর কাজে অংশ নেয়।

রাত ৮টা পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নেভানোর কাজে নিয়োজিত ছিলেন। ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট একযোগে টঙ্গীর তুরাগ নদী থেকে পাইপের সাহায্যে পানি দিয়ে আগুন নেভানোর কাজে অংশ নেয়। এসময় কারখানার শ্রমিক ও আশপাশের লোকজন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সাথে আগুন নেভানোর কাজে সহযোগিতা করে। প্রায় তিন ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও ততক্ষনে কারখানায় থাকা সব মালামাল পুড়ে যায়। টঙ্গী তুরাগ নদীর উত্তর তীরে টঙ্গীর শেষ সীমানা দক্ষিণপাশে বিশাল আয়তনের এই কারখানাটিতে প্রায় তিন হাজার শ্রমিক তিন শিফটে কাজ করতো। যখন আগুন লাগে তখন কারখানাটিতে শ্রমিকরা কাজে নিয়োজিত ছিলেন। কারখানার কয়েকজন শ্রমিক জনকণ্ঠকে জানান, হঠাৎ করে কোথা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে তা তারা বলতে পারছে না।

নির্বাচিত সংবাদ