২৯ জানুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বৃহস্পতিবারও স্বর্ণ বঞ্চিত বাংলাদেশ

স্পোর্টস রিপোর্টার, কাঠমান্ডু, নেপাল থেকে ॥ বৃহস্পতিবার টানা দ্বিতীয় দিনের মতো স্বর্ণ খরায় ভুগতে হয়েছে বাংলাদেশ ক্রীড়া দলকে। তবে এদিন লাল-সবুজরা শূটিং, ব্যাডমিন্টন, উশু ও ভারোত্তোলন ডিসিপ্লিন থেকে ৫টি রৌপ্য ও ৯ তা¤্রপদক করায়ত্ত করে।

শূটিংয়ে দিশা-টুম্পা-রতœার রৌপ্য ॥ মেয়েদের ৫০ মিটার রাইফেল থ্রি পজিশনে দলগত ইভেন্টে রৌপ্যপদক জিতেছে বাংলাদেশ। সৈয়দা আতকিয়া হাসানা দিশা, উম্মে জাকিয়া সুলতানা টুম্পা এবং শারমিন আক্তার রতœা একসঙ্গে দেশকে এই ইভেন্টে রৌপ্যপদক এনে দেন। আগেরদিনও মেয়েদের ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে দলগত ইভেন্টে রৌপ্যপদক জিতেছিলেন তারা।

এছাড়া মেয়েদের ৫০ মিটার রাইফেল থ্রি পজিশনের এককে দিশা ষষ্ঠ এবং টুম্পা সপ্তম হন। রতœা ফাইনালে যেতে পারেননি। ছেলেদের ১০ মিটার এয়ার রাইফেল এককে ব্রোঞ্জ পান আব্দুল্লাহ হেল বাকী। রবিউল হোসেন এবং রাব্বি হাসানকে নিয়ে দলগত ইভেন্টেও ব্রোঞ্জ পান তিনি।

উশুতে মর্জিনা-সজীবের দুটি রৌপ্য ॥ নানচুয়ান নানদা অলরাউন্ড ইভেন্টে বাংলাদেশকে রৌপ্যপদক উপহার দিয়েছেন মর্জিনা আক্তার। রৌপ্য জিততে তিনি হারান শ্রীলঙ্কার প্রতিযোগী সাঞ্জু কুমারীকে। তবে ফাইনালে মর্জিনা হেরে যান নেপালের নিমা ঘারতি মাগারর কাছে। ১৮.৯১ পয়েন্ট নিয়ে সোনা জেতেন মিনা। আর মর্জিনার পয়েন্ট ১৬.৩০। শ্রীলঙ্কার সাঞ্জু ১৪.৭৪ পয়েন্ট নিয়ে ব্রোঞ্জ পান। এদিকে পুরুষদের ইভেন্টে বাংলাদেশের সজীব হোসেন জেতেন রৌপ্যপদক। পুরুষ উশু অলরাউন্ড ইভেন্টে ব্রোঞ্জপদক জেতেন বাংলাদেশের রাশেদ হোসেন। অপরদিকে উশুর তাইজি-তাইজি জিয়ান অলরাউন্ড ইভেন্টে ব্রোঞ্জ জেতেন দীপ্তি দাস। উশুতে বুধবার আরও দুটি ব্রোঞ্জ জিতেছিল লাল-সবুজরা। ছেলেদের অ-৮০ কেজি সানদায় রুবেল খান এবং অ-৭৫ কেজি সানদায় সেলিম আহমেদ ব্রোঞ্জপদক লাভ করেন।

ভারোত্তোলনে রাজকুমার-ফুলপতির ২টি রৌপ্য ॥ ভারোত্তোলনে ছেলেদের ৫৫ কেজি ওজন শ্রেণীতে রৌপ্যপদক জিতেছেন বাংলাদেশের রাজককুমার রায়। স্ন্যাচ (৮০) এবং ক্লিন এ্যান্ড জার্ক (১০৪) মিলিয়ে ১৮৪ কেজি ভার উত্তোলন করেন তিনি। এই ইভেন্টে সোনা জেতেন শ্রীলঙ্কার ওয়াইডিআই কুমারা (মোট ২৩৫ কেজি)। ব্রোঞ্জ জেতেন নেপালের তুলা রাম (মোট ১৭৮ কেজি)। মেয়েদের ৫৫ কেজিতে বাংলাদেশের ফুলপতি চাকমা রৌপ্যপদক জিতেছেন। স্ন্যাচে ৬৩ কেজি এবং ক্লিন এ্যান্ড জার্কে ৮৫ কেজি মিলিয়ে সর্বমোট ১৪৮ কেজি ওজন তুলে রৌপ্যপদক জেতেন তিনি। ভারতের বিন্দিয়ারানী দেবী ১৭১ কেজি তুলে স্বর্ণ এবং পাকিস্তানের সাইমা শাহজাদ ১৩৫ কেজি ওজন তুলে ব্রোঞ্জ পান। ছেলেদের ৬১ কেজিতে বাংলাদেশের মোস্তাইন বিল্লাহ ব্রোঞ্জ পান। সবমিলিয়ে ২৩৫ কেজি ওজন তোলেন তিনি। মেয়েদের ৪৯ কেজিতে মোল্লা সাবিরা সুলতানা সবমিলিয়ে ১৩০ কেজি ওজন তুলে ব্রোঞ্জ পান।

সালমান-ঊর্মি জুটির ব্রোঞ্জ ॥ ব্যাডমিন্টন ডিসিপ্লিনের মিক্সড ডাবলস ইভেন্টে ব্রোঞ্জ নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হলো বাংলাদেশকে। সালমান-ঊর্মি জুটি শ্রীলঙ্কার কাছে ১৩-২১, ৯-২১ পয়েন্টে হেরে যান এবং তা¤্রপদক অর্জন করেন। এমন হারের পরও তৃপ্তি বাংলাদেশ শিবিরে। কারণ সালমান-ঊর্মির আগে কখনই একসঙ্গে খেলেননি। ফিকশ্চারের কারণেই জুটি গড়তে হয়েছে তাদের। আর দুজন ট্রেনিংও করেছেন দুই কোচের অধীনে। তাই পারস্পরিক বোঝাপড়াটাও তেমন মজবুত ছিল না। চলতি এ আসরের ব্যাডমিন্টন থেকে একটি মাত্র ব্রোঞ্জ নিয়েই শনিবার দেশে ফিরছে ব্যাডমিন্টন টিম।

তায়কোয়ান্দোতে রাসেল-সালমার ব্রোঞ্জ ॥ তায়কোয়ান্দোতে পুরুষ অ-৮৭ কেজিতে ব্রোঞ্জ জেতেন বাংলাদেশের রাসেল খান। নেপালের প্রতিযোগীর কাছে হারেন তিনি। এছাড়া অ-৬৭ কেজিতে বাংলাদেশের সালমা খাতুন নেপালের প্রতিপক্ষের কাছে হেরে ব্রোঞ্জ পান।

পুরুষ ও নারী কাবাডিতে হার বাংলাদেশের ॥ পুরুষ কাবাডিতে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ ২১-৩৭ পয়েন্টে পাকিস্তানের কাছে হেরেছে। প্রথমার্ধে পাকিস্তান ১৬-৮ পয়েন্টে এগিয়ে ছিল। বাংলাদেশের পরের ম্যাচ ৭ ডিসেম্বর শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে। নারী কাবাডিতে ভারতের কাছে ৪৭-১৬ পয়েন্টে হারে বাংলাদেশ।

নারী হ্যান্ডবলে বাংলাদেশের আক্ষেপের হার, পুরুষ দলের জয় ॥ পোখারায় অনুষ্ঠিত মেয়েদের হ্যান্ডবলে নেপালের কাছে আক্ষেপের হার হেরেছে বাংলাদেশ। কেননা গোলের স্কোরলাইন ছিল ২৬-২৪! প্রথমার্ধে বাংলাদেশ ১৩-১২ গোলে এগিয়েছিল।

এদিকে ছেলেদের হ্যান্ডবলে মালদ্বীপকে ৩৮-২২ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ। প্রথমার্ধে বাংলাদেশ ১৬-১০ গোলে এগিয়ে ছিল।

নির্বাচিত সংবাদ