২২ জানুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

১৫ আগস্ট বোমা হামলার পরিকল্পনার মামলায় ১৪ জনের বিরুদ্ধে চার্জশীট

কোর্ট রিপোর্টার ॥ ২০১৭ সালের ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের র‌্যালিতে জঙ্গী হামলা পরিকল্পনার মামলায় ১৪ জনের বিরুদ্ধে চার্জশীট দাখিল করেছে পুলিশ। গতকাল রবিবার আদালতে ওই চার্জশীট উপস্থাপন হওয়ার পর ঢাকা মহানগর হাকিম সাইদুজ্জামান শরীফ চার্জশীট শনাক্ত করে বিচারিক আদালতে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছেন। গত ২৪ নবেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের কাউন্টার টেররজিম ইউনিটের পরিদর্শক রাজু আহম্মেদ ঢাকা সিএমএম আদালতে এ চার্জশীট দাখিল করেছিলেন।

চার্জশীটের আসামিরা হলেন- কিশোরগঞ্জ জেলার মিঠামইন থানার চারিগ্রামের মিছির আলী খানের ছেলে আবু তোরাব খান (৫৬), তার স্ত্রী সাদিয়া হোসনা লাকী (৪৬), ছেলে আকরাম হোসেন খান নিলয় ওরফে স্লেড উইলসন (২৪) ও মেয়ে তাজরীন খানম শুভ (২৯), রাজধানীর গুলশান থানাধীন গুলশান-২ এর ৫১ নম্বর রোডের ৭ নম্বর বাসার কনকর্ড প্যানোরামার ১০১ নম্বর ফ্ল্যাটের মালিক তানভির ইয়াসিন করিম ওরফে হিটম্যান ওরফে জিন (৩২), তার স্ত্রী হুমায়রা জাকির নাবিলা (৩০), বরিশাল জেলার সদর থানার রুপাতলীর ইসমাইল মীরের ছেলে নাজমুল হাসান ওরফে মামুন (২১), শেরপুর জেলার নকলা থানার হুজুরীকান্দা গ্রামের মৃত শফিকুল ফকিরের ছেলে আবুল কাশেম ফকির ওরফে আবু মুসাব (২২), নওগাঁ জেলার আত্রাই থানার নওদুলী গ্রামের মৃত হাফিজুর রহমানের ছেলে আব্দুল্লাহ আইচান কবিরাজ ওরফে রফিক (৪১), একই জেলার রানীনগর থানার বেতগাড়ী গ্রামের মোঃ আয়েত সরদারের ছেলে মোঃ লুলু সরদার ওরফে সহিদ ওরফে মিস্ত্রি (৩০), ময়মনসিংহ জেলার সদর থানার বোররচর গ্রামের মাওলানা আফতাব উদ্দিনের ছেলে তারেক মোহাম্মদ ওরফে আদনান (২২), নাটোর জেলার সদর থানার চকআমহাটি গ্রামের মোঃ আক্তার সরদারের ছেলে মোঃ কামরুল ইসলাম শাকিল ওরফে হারিকেন ওরফে রোবট ও ওরফে তানজিম (২৫), কক্সবাজার জেলার সদর থানার ঈদগাহ ডোমরিয়াঘোষণা চৌধুরীপাড়ার রণজিৎ কান্তি দাসের ছেলে নব মুসলিম আব্দুল্লাহ (হিন্দু থাকাকালীন নাম ছিল রণবীর কান্তি দাশ রনি) (৩২) ও গাজীপুর জেলার শ্রীপুর থানার বালিয়াপাড়া গ্রামের আব্দুল জলিলে ছেলে তাজুল ইসলাম ওরফে ছোটন ওরফে মোহাম্মদ ওরফে ফাহিম (১৭)।

আসামিদের মধ্যে হোমায়রা ওরফে নাবিলা নব্য জেএমবির নারী শাখা ‘ব্যাট উইমেন’-এর প্রধান ছিলেন। তার স্বামী তানভির ইয়াসিন করিম এ ঘটনার দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছেন। নাবিলার সঙ্গে নব্য জেএমবির সমর্থক অর্থদাতার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। নাবিলা মূলত নব্য জেএমবির শীর্ষনেতা আকরাম হোসেন খান নিলয়ের মাধ্যমে জঙ্গী কার্যক্রমে জড়িয়ে পড়েন। নিয়মিত জঙ্গীদের টেলিগ্রাম এ্যাপসের মাধ্যমে নাবিলা জঙ্গী আকরামের সঙ্গে যোগাযোগ করতেন। এ্যাপসে তার আইডি হলো ব্যাট উইমেন। নাবিলা এ্যাপসের মাধ্যমে নব্য জেএমবির নারীদের বিভিন্ন নির্দেশনা দিতেন বলে অভিযোগপত্রে বলা হয়।

নাবিলা ভিকারুননিসা নূন স্কুল এ্যান্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। পরে নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয় ও মালয়েশিয়ায় পড়ালেখা করেছেন। হোমায়রার বাবার রাজধানীর হাতিরপুলে একটি বিলাসবহুল শপিং মল রয়েছে।

২০১৮ সালের ২২ মার্চ বগুড়া থেকে গ্রেফতার হন নব্য জেএমবির মূল সমন্বয়ক ও অর্থদাতা আকরাম হোসেন খান নিলয়। কলাবাগানে জাতীয় শোক দিবসের র‌্যালিতে হামলার মূল পরিকল্পনাকারী ছিলেন তিনি। মামলায় আকরামের বাবা আবু তুরাব খান, মা সাদিয়া হোসেন লাকী ও বোন তাজরীন আকরামের মাধ্যমেই নব্য জেএমবিতে জড়িয়ে পড়েন।

নির্বাচিত সংবাদ