২২ জানুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কৃষকরা পণ্যের ন্যায্যমূল্য না পেলে জাপা সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলেবে : জিএম কাদের

কৃষকরা পণ্যের ন্যায্যমূল্য না পেলে জাপা সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলেবে    :   জিএম কাদের

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলের উপনেতা জি এম কাদের বলেছেন, কৃষকরা তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্য না পেলে, জাতীয় পার্টি সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ভাষায় কথা বলেবে। আমি কাউকে ভয় পাই না। সোমবার রাজধানীর সেগুনবাগিচার কচিকাঁচা মিলনায়তনে জাতীয় কৃষক পার্টিও দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। একই অনুষ্ঠানে দলের মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা বলেছেন, পেঁয়াজ ছাড়া যদি রান্না হয়, তবে আওয়ামী লীগ ছাড়াও দেশ চলবে।

সম্মেলনে জাপা চেয়ারম্যান বলেন, ‘জাতীয় পার্টি অনেক নির্যাতন সহ্য করেছে। কোনই নির্যাতনই জাতীয় পার্টিকে দাবিয়ে রাখতে পারেনি। জাতীয় পার্টি আর কোনো নির্যাতন সহ্য করবে না। এখন থেকে সব ধরনের নির্যাতন রুখে দাঁড়াবে এবং সামনে এগিয়ে যাবে। সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থেকে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচলানা করার জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে জি এম কাদের বলেন, ‘বাইওে থেকে জাতীয় পার্টির ওপর যত আঘাত আসুক কিছুই হবে না। তবে দলের মধ্যে ষড়যন্ত্র থাকলে পার্টি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। দলের ভেতর থেকে কেউ যাতে ষড়যন্ত্র না কওে সেদিকে কড়া নজর রাখতে হবে।

জাতীয় পার্টিও মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মো. মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেছেন, দ্রব্যমূল্য অসহনীয় পর্যায়ে চলে গেছে। মানুষ আজ ভালো নেই। পেঁয়াজ কিনতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে। পেঁয়াজ ছাড়া অনেকে রান্নার কথা বলেছেন। পেঁয়াজ ছাড়া যদি রান্না হয়, তবে আওয়ামী লীগ ছাড়াও দেশ চলবে।

সাবেক স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী রাঙ্গা বলেন, এখন পেঁয়াজ সিরিয়া ও পাকিস্তান থেকে আমদানি করা হচ্ছে। এ পাকিস্তান নিয়ে এতকিছু, এখন পাকিস্তান থেকেই পেঁয়াজ আনা হয়। এখন আমদানি করা পেঁয়াজের একাটার যে সাইজ, প্রায় এককেজির মতো। এ সাইজের একটি পেয়াঁজ রান্না করতে, এক পেঁয়াজ লাগবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

কাদের বলেন, দেশের কৃষকরা সবচেয়ে বেশি অবহেলিত। কৃষকের ঘরে যখন ধান উঠে তখন কৃষক ধানের সঠিক দাম পায় না। তাদের কম দামে ধান বিক্রি করতে হয়। সরকার ভর্তুকি দিলেও সেটি কৃষকরা পায় না। মধ্যস্বত্ব ভোগীরা এ সুবিধাটা নিয়ে নিচ্ছে। তাদের দুর্নীতির কারণে কৃষকরা আজ ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বলে তিনি জানান।

তিনি বলেন, কৃষক বাঁচলে বাংলাদেশ বাঁচবে, আমরা বাঁচবো। এজন্য কৃষকের ন্যায্য দাবি আদায়ে কৃষক পার্টিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। জাতীয় কৃষক পার্টির সভাপতি ও প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপার সভাপতিত্বে সম্মেলন আরও বক্তব্য রাখেন জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, এস এম ফয়সাল চিশতী, সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন, মীর আব্দুস সবুর আসুদ, কৃষক পার্টির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এবিএম লিয়াকত হোসেন চাকলাদার প্রমুখ।

নির্বাচিত সংবাদ