২৮ জানুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিপিএলে সিলেটকে ৫ উইকেটে হারিয়ে শুভ সূচনা করল চট্টগ্রাম

বিপিএলে সিলেটকে ৫ উইকেটে হারিয়ে শুভ সূচনা করল চট্টগ্রাম

অনলাইন ডেস্ক ॥ বিপিএলে আজ দিনের প্রথম ম্যাচে সিলেট থান্ডারকে ৫ উইকেটে হারিয়ে শুভ সূচনা করল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স।টন হেরে প্রথমে ব্যাটিং করে সিলেট থান্ডার ৪ উইকেট হারিয়ে করে ১৬২ রান।জবাবে ১৯ ওভারে সেই রান তাড়া করে ৫ উইকেটে জিতে শুভ সূচনা করল চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। সিলেটের পক্ষে মোহাম্মদ মিঠুনমাত্র ৪৮ বলে খেলেছেন ৮৪ রানের অপরাজিত ইনিংস। যেখানে ছিলো ৪টি চারের সঙ্গে ৫টি ছয়ের মার। অপর দিকে ইমরুল ২ চার ও ৫ ছক্কার মারে ৩৮ বলে ৬১ রানের ঝকঝকে এক ইনিংস

জয়ের জন্য ১৬৩ রানের লক্ষ্য নিয়ে ব্যাটিংয়ে নেমেছিল চট্টগ্রাম। ষষ্ঠ ওভারের মধ্যে টপ অর্ডারে প্রথম তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বিপদে পড়েছিল দলটি। বিশেষ করে চতুর্থ ওভারে টানা দুই বলে দুই উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়েছিল রায়ান এমরিতের দল। সিলেটের বাঁ হাতি স্পিনার নাজমুল ইসলাম জুনায়েদ সিদ্দিকিকে (৭ বলে ৪) তুলে নেন চতুর্থ ওভারের পঞ্চম বলে। পরের বলে নাসির হোসেনকে (০) বোল্ড করে সিলেটকে বোলিংয়ে ভালো শুরু এনে দেন নাজমুল। ২৬ বলে ৩৩ করে ক্রমশ বিপজ্জনক হয়ে ওঠা লঙ্কান ওপেনার আভিষ্কা ফার্নান্দোকে ষষ্ঠ ওভারে তুলে নেন ক্রিসমার স্যান্টোকি। সে ওভার শেষে চট্টগ্রামের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৩ উইকেটে ৪২ রান।

জিম্বাবুয়ের অলরাউন্ডার রায়ান বার্ল এসে মাত্র ৩ রান করে ফিরলে চট্টগ্রামের বিপদ আরও বেড়ে যায়। কিন্তু এখান থেকে দুর্দান্ত এক পাল্টা লড়াই শুরু করেন ইমরুল কায়েস এবং চ্যাডউইক ওয়ালটন। পঞ্চম উইকেটে দুজনের ৫২ বলে ৮৬ রানের জুটিতে জয়ের সুবাস পাচ্ছিল চট্টগ্রাম। কিন্তু দল জয় থেকে ১৪ বলে ১৩ রানের দূরত্বে পিছিয়ে থাকতে এবাদত হোসেনকে মারতে গিয়ে ক্যাচ দেন ইমরুল। ৫ ছক্কা ও ২ চারে ৩৮ বলে ৬১ রান করেন ইমরুল।

জয়ের জন্য শেষ দুই ওভারে ১১ রান দরকার ছিল চট্টগ্রামের। তখন ম্যাচে ফেরার সুযোগ ছিল সিলেটেরও। কিন্তু ১৯তম ওভারে চট্টগ্রামকে কোনোভাবেই আটকাতে পারেননি স্যান্টোকি। তাঁর ওভারেই ১১ রান তুলে নেন ওয়ালটন-নুরুল জুটি। ৩০ বলে ৪৯ রানে অপরাজিত ছিলেন ওয়ালটন। সিলেটের হয়ে ৩৩ রানে ২ উইকেট নেন নাজমুল।

ম্যাচ সেরা হয়েছেন ইমরুল কায়েস।