২০ ফেব্রুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দেশে বর্তমানে সাড়ে সাত লাখ অন্ধ মানুষ আছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দেশে বর্তমানে সাড়ে সাত লাখ অন্ধ মানুষ আছে  : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ চলতি বছরেই দেশের ৬৪টি জেলায় কমিউনিটি ভিশন সেন্টারের মাধ্যমে চক্ষুসেবা কেন্দ্র স্থাপন করা হবে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক,এমপি। তিনি বলেন, চোখের নানা সমস্যায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। দেশে বর্তমানে সাড়ে সাত লাখ অন্ধ মানুষ রয়েছে। চোখের অন্যান্য সমস্যাগ্রস্ত মানুষের সংখ্যা ৬০ লাখেরও বেশি। এই সমস্যা দূরীকরণে সরকারি ও বেসরকারিভাবে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণের পাশাপাশি ব্যক্তি সচেতনতাও বাড়াতে হবে।

রবিবার সকালে রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে ন্যাশনাল আই কেয়ার কর্তৃক আয়োজিত বাংলাদেশ ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর দ্যা ব্লাইন্ড (বিএনসিবি) সভা-২০২০ উপলক্ষে আয়োজিত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে সভায় অন্যন্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ এইচ এম এনায়েত হোসেন, সুপ্রীম কোর্টের ডেপুটি এ্যাটর্নি জেনারেল মো. মোতাহার হোসেন সাজু, জাতীয় চক্ষুবিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. গোলাম মোস্তফা প্রমুখ। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ২০০৭-২০১১ সময়ের জন্য দেশে প্রথম চক্ষু চিকিৎসা অপারেশন প্লান, ২০১১-২০১৬ সময়ের জন্য দ্বিতীয় অপারেশন প্লান ও ২০১৭-২০২২ সময়ের জন্য তৃতীয় অপারেশন প্লান গ্রহণ করা হয়েছে।

সচেতনতা বাড়ানোর তাগিদ দিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, জনমনে চক্ষুরোগ ও নানা সমস্যা প্রতিরোধে সচেতনতা বাড়াতে হবে। কায়িক শ্রম না করার কারণে ডায়াবেটিস রোগ দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ায় মানুষের চোখের সমস্যা আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে। খেলার জায়গা না থাকায় শিশুদেরও চোখের সমস্যা বেড়ে যাচ্ছে। মানুষের চোখের চিকিৎসায় সব ধরনের সহযোগিতায় প্রস্তুত রয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এবছরই দেশের ৬৪টি জেলাতেই চক্ষু চিকিৎসক পদায়নসহ প্রতিটি উপজেলায় কমিউনিটি ভিশন সেন্টার স্থাপন করা হবে।