২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জেফ বেজোসের মোবাইল হ্যাক করেছিলেন প্রিন্স সালমান!

জেফ বেজোসের মোবাইল হ্যাক করেছিলেন প্রিন্স সালমান!

অনলাইন ডেস্ক ॥ সৌদি প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের বিরুদ্ধে অ্যামাজনের প্রধান এবং বিশ্বের শীর্ষ ধনী জেফ বেজোসের মোবাইল হ্যাকের অভিযোগ উঠেছে। হোয়াটসঅ্যাপে প্রিন্স সালমানের পাঠানো একটি বার্তা গ্রহণের পরই বেজোসের মোবাইল হ্যাক হয়। এই ঘটনা তদন্তের সঙ্গে যুক্ত দুই ব্যক্তি এমন তথ্য জানিয়েছেন।

২০১৮ সালের মাঝামাঝি সময়ে ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের কাছ থেকে হোয়াটসঅ্যাপে বার্তা পেয়েছিলেন জেফ বেজোস। সে সময়ই হ্যাকিংয়ের ঘটনার সূত্রপাত হয়। হোয়াটসঅ্যাপে বেজোসের কাছে একটি ভিডিও ফাইল পাঠিয়েছিলেন মোহাম্মদ বিন সালমান। ওই ফাইলটিতে ভাইরাস থাকার কারণে বেজোসের মোবাইল হ্যাক হয়ে যায়।

একটি ফরেনসিক বিশ্লেষণ থেকে এটা নিশ্চিত হওয়া গেছে যে, মোহাম্মদ বিন সালমানের হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করেই বেজোসের মোবাইল হ্যাক করা হয়েছে।

হোয়াটসঅ্যাপে গত বছরের মে মাসের ১ তারিখে মোহাম্মদ সালমান এবং জেফ বেজোসের মধ্যে বার্তা আদান-প্রদান হয়। সে সময়ই বেজোসের কাছে প্রিন্স সালমানের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট থেকে একটি ভিডিও বার্তা পাঠানো হয়।

এক কর্মকর্তা বলেন, কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই বেজোসের মোবাইল থেকে অনেক তথ্য হ্যাক করা হয়েছে। তবে বেজোসের ফোন থেকে কি ধরনের তথ্য হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে বা সেগুলো কিভাবে ব্যবহার করা হয়েছে সে বিষয়ে কিছু জানা সম্ভব হয়নি।

সৌদির ভবিষ্যত বাদশাহ ক্রাউন প্রিন্স সালমানের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ সবাইকে হতবাক করেছে। বেজোসের জন্য এমবিএস হিসেবে খ্যাত ক্রাউন প্রিন্স সালমানের এটা একটা 'টোপ' হতে পারে বলেও ধারণা করা হচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে সৌদিতে পশ্চিমা বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ বাড়ানোর চেষ্টা করছেন প্রিন্স সালমান। তিনি দেশে অর্থনৈতিক সংস্কারের ডাক দিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি তার সমালোচক ও প্রতিদ্বন্দ্বীদের শক্ত হাতে দমন করছেন।

নির্বাচিত সংবাদ