২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জনসেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চাই : ইশরাক

 জনসেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চাই : ইশরাক

স্টাফ রিপোর্টার ॥ মানুষের সেবা করার জন্য মেয়র প্রার্থী হয়েছেন উল্লেখ করে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন বলেছেন আমি জনসেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চাই। বৃহস্পতিবার বিভিন্ন এলাকায় নির্বাচনী প্রচারকালে তিনি এ কথা বলেন।

সকাল সাড়ে ৯টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক আখতারুজ্জামানের সঙ্গে সাক্ষাত ও দোয়া প্রার্থনার মাধ্যমে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন তার নির্বাচনী প্রচার শুরু করেন। পরে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঘুরে ঘুরে ভোট প্রার্থনা করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভিসির সঙ্গে সাক্ষাতকালে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে ইশরাক হোসেন বলেন, যদিও আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র নই তারপরও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে আমার আত্মার সম্পর্ক রয়েছে। আমার বাবা, আমার মা ও আমার বোন এখানে পড়াশোনা করেছেন। আমি এখানে এসেছি আপনার কাছে দোয়া চাইতে। আমার ছোটবেলা থেকেই ইচ্ছা ছিল রাজনীতি করার। একজন্য নির্বাচনে প্রতিদ্বন্ধিতা করছি। আমি যদি মেয়র নির্বাচিত হই তাহলে সিটি কর্পোরেশনের সকল সমস্যা নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করব। এ ছাড়া মানুষের সকল ধরনের অধিকার নিয়ে আমি কাজ করতে চাই। আমি জনসেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চাই।

এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক আখতারুজ্জামান বলেন, আশা করছি সামনের নির্বাচন একটি সুষ্ঠু ও সাবলীল পরিবেশে হবে। ইশরাক হোসেনকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, এখানে আসার জন্য আমি আপনাদের স্বাগত জানাচ্ছি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির সঙ্গে সাক্ষাতকালে ইশরাক হোসেনের সঙ্গে ছিলেন এই বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের সাদা দলের আহবায়ক অধ্যাপক ড. এবিএম ওবায়দুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক অধ্যাপক মোরশেদ হাসান খান, অধ্যাপক লুৎফর রহমান, সাবেক আহবায়ক অধ্যাপক আকতার হোসেন খান, অধ্যাপক ড. আবদুর রশিদ, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ডাকসুর সাবেক জিএস খায়রুল কবির খোকন, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, দলের নেতা কামরুজ্জামান রতন, যুবদল সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি রাজীব আহসান, ছাত্রদলের বর্তমান সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সাধারণ সম্পাাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল প্রমুখ।

দুপুর ১২টা পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রচারের পর দুপুর ১২ টায় হাই কোর্ট মাজার গেটে নির্বাচনী প্রচার করেন ইশরাক হোসেন। সেখানে তার নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগী, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও জাতীয়তাবাদী আইনজীবী নেতা এডভোকেট জয়নাল আবদিন, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুবউদ্দিন খোকনসহ বেশ ক’জন আইনজীবী। হাইকোর্ট এলাকায় প্রচার শেষে ইশরাক হোসেন শ্যামপুর থানার ৫৪ নং ওয়ার্ডের জুরাইন মাজারের ব্যাংক এশিয়ার সামনে, পোস্তগোলা, জুরাইন কবরস্থান, আরসিন গেট, টিএন্ডটি ও বাংলাদেশ ব্যাংক কলোনী, গেন্ডারিয়া ডিআইটি প্লট, পাইপ রাস্তা, শীট মার্কেট, আবু হাজী প্রাইমারী স্কুল হয়ে ৫১ নং ওয়ার্ডের দয়াগঞ্জ মোড়ে গিয়ে প্রচার শেষ করেন ইশরাক হোসেন।

আরেক পথসভায় ইশরাক বলেন, আমরা জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে রয়েছি, মানুষের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দেয়ার আন্দোলনে রয়েছি, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে রয়েছি। মহান মুক্তিযুদ্ধের মূলমন্ত্র ছিল জনগণ হবে ক্ষমতার মালিক, জনগণ হবে রাষ্ট্রের মালিক। ভোটের দিন যদি সেরকম কোনো পরিস্থিতি হয় তাহলে জনগণই সিদ্ধান্ত নেবে তারা কিভাবে তাদের অধিকার সংরক্ষণ করবে এবং তারা তাদের প্রতিবাদ জানাবে।

নির্বাচিত সংবাদ