২০ ফেব্রুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

চালের মূল্য সহনীয় রাখতে ৭ বিশেষ মনিটরিং টিম

চালের মূল্য সহনীয় রাখতে ৭ বিশেষ মনিটরিং টিম

অনলাইন রিপোর্টার ॥ কারসাজির মাধ্যমে কেউ যাতে চালের মূল্য বাড়াতে না পারে তার জন্য পদক্ষেপ নিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়। এ লক্ষ্যে চালের মূল্য নিয়ন্ত্রণে সাতটি বিশেষ বাজার মনিটরিং টিম গঠন করেছে সরকার।

আজ বুধবার খাদ্য মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মো. শামীম হাসান ও খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সারোয়ার মাহমুদ স্বাক্ষরিত আলাদা দু’টি অফিস আদেশে বিষয়টি জানানো হয়।

আদেশে বলা হয়, খাদ্যশস্যের বাজারমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রবণতা রোধ, নিম্ন আয়ের জনগোষ্ঠীকে সহায়তা, বাজারদর স্থিতিশীল রাখা, কৃষকদের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করার স্বার্থে খাদ্য মন্ত্রণালয় ও খাদ্য অধিদপ্তরের অধীনে মোট সাতটি বাজার মনিটরিং টিম গঠন করা হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা মহানগরের বড় বড় পাইকারি বাজার সরেজমিনে তদারকির জন্য খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে চারটি ও খাদ্য অধিদপ্তরের অধীনে তিনটি মনিটরিং কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিগুলোকে বাজারদর সংগ্রহ করে খাদ্য মন্ত্রণালয় ও খাদ্য অধিদপ্তরে প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

কমিটির কার্যপরিধির মধ্যে রয়েছে, ঢাকা মহানগরের বড় বড় পাইকারি বাজার সরেজমিনে তদারকি করে বাজারদর সংগ্রহ করে প্রতিবেদন দাখিল, বাজার পরিদর্শনে দিনের বাজারদর ও আগের দু’দিনের বাজারদর সংগ্রহ করে প্রতিবেদন প্রস্তুত, বাজারে চাল ও আটার বিক্রয়মূল্য, ক্রয়মূল্যের তথ্য সংগ্রহ।

বাজার মনিটরিংয়ের দায়িত্বে থাকা কমিটিগুলো প্রতিদিন বাজার মনিটরিং করবে।

খাদ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন কমিটি-১ এর নেতৃত্বে রয়েছেন যুগ্ম-সচিব মোছা. কামার জাহান, কমিটি-২ এর নেতৃত্বে আছেন উপ-সচিব রায়না আহমদ, কমিটি-৩ এর নেতৃত্বে আছেন উপ-সচিব মো. শামীম হাসান এবং খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব মোছা. তাহমিনা খানমের নেতৃত্বে কমিটি-৪ গঠন করা হয়েছে।

অন্যদিকে খাদ্য অধিদপ্তরের আওতাধীন কমিটি-১ এর নেতৃত্বে আছেন খাদ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক রেজা মোহাম্মদ মহসিন, কমিটি-২ এর নেতৃত্বে আছেন সিনিয়র ইন্সট্রাক্টর নকীব সাদ সাইফুল ইসলাম ও কমিটি-৩ এর নেতৃত্বে আছেন অতিরিক্ত পরিচালক মো. আমজাদ হোসেন।

প্রত্যেক কমিটিতে দু’জন করে সদস্য রয়েছেন। প্রতিটি কমিটিকে পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত নিয়মিত বাজার পরিবীক্ষণ করে বস্তুনিষ্ঠ প্রতিবেদন খাদ্য মন্ত্রণালয় ও খাদ্য অধিদপ্তরে দাখিলের জন্য বলা হয়েছে।

সম্প্রতি খাদ্য মন্ত্রণালয়ে সভা করে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার খাদ্য মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের এ নির্দেশনা দেন। এসময় খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ধানের দামের সঙ্গে চালের দামের সামঞ্জস্য রাখতে হবে। কোনোক্রমেই যেন মিল মালিক ও ব্যবসায়ীরা বাড়তি সুবিধা না নিতে পারে। একদিকে কৃষক যেন ন্যায্যমূল্য পান, অন্যদিকে ভোক্তারাও যাতে সহনীয় দামে চাল কিনে খেতে পারেন সেটা নিশ্চিত করতে হবে। মন্ত্রী চালের বাজার অস্থিতিশীল করতে কেউ যদি কারসাজির চেষ্টা করে তার বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ারও নির্দেশ দেন।

এর আগে গত ১ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে চালের মূল্য সহনীয় রাখতে একটি কন্ট্রোলরুম ও বিশেষ মনিটরিং টিম গঠন করেছিল সরকার। যা বর্তমানেও খোলা রয়েছে। বাজার পরিস্থিতি নিয়ে যে কেউ উল্লিখিত কন্ট্রোলরুমে অভিযোগ জানাতে পারবেন। অভিযোগ কেন্দ্রের ফোন নম্বর ০২-৯৫৪০০২৭ ও ০১৬৪২৯৬৭৭২৭।