২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পাঁচ বছর এ ক্যাটাগরিতে আসবে প্রগ্রেসিভ লাইফ

পাঁচ বছর এ ক্যাটাগরিতে  আসবে প্রগ্রেসিভ লাইফ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ পাঁচ বছর পর লভ্যাংশ প্রদান করার কারণে এ ক্যাটাগরিতে আসছে বিমা খাতের কোম্পানি প্রগেসিভ লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড। ক্যাটাগরি পরিবর্তনের আগেই বিনিয়োগকারীদের মধ্যে চাহিদার শীর্ষে পৌঁছে গেছে কোম্পানিটির শেয়ার।

আগামী সপ্তাহ নাগাদ গত দুই বছরের বোনাস শেয়ার বিও হিসাবে জমার পরদিনই কোম্পানিটির এ ক্যাটাগরিতে চলে আসবে। আর এটি হলে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন সম্পন্ন হবে তিন কার্যদিবসে। বর্তমানে জেড ক্যাটাগরিতে থাকার কারণে এখন ৯ কার্যদিবসে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়ে থাকে। জেড ক্যাটাগরিতে থাকার পর গত দুইমাসে কোম্পানিটির শেয়ার প্রায় ৬০ শতাংশ বেড়েছে। প্রবাসী শ্রমিকদের বিদেশ যেতে জীবন বিমা বাধ্যতামূলক করতে সরকারি নির্দেশনার আসার পরই খাতটির প্রতি বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বেড়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

বিমা সংশ্লিষ্টরা জানান, বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) নির্দেশনা অনুসারে জীবন বীমা কোম্পানিগুলোকে দ্রুতসময়ের মধ্যে পরিশোধিত মূলধন ৩০ কোটিতে উন্নীত করতে হবে। আর এক্ষেত্রে কোম্পানিটিকে বোনাস ও রাইট শেয়ার ঘোষণা ছাড়া সম্ভব নয়। আগামীতে কোম্পানিকে মূলধন বাড়ানোর পথে হাঁটতেই হবে এমন আশাবাদেই মূলত বিনিয়োগকারীরা শেয়ারটির প্রতি আগ্রহী হয়ে উঠছেন। এছাড়া সরকারেরও বিশেষ নজর রয়েছে বিমা খাতের প্রতি। এটিও আগ্রহ বাড়ার অন্যতম কারণ। যার কারণে প্রগেসিভ লাইফের মতো অন্যসব কোম্পানিরও আগ্রহ রয়েছে শেয়ারবাজারে।

২০০৬ সালে তালিকাভুক্ত প্রগেসিভ লাইফের পরিশোধিত মূলধন ১৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা। এর মধ্যে ৫৭ দশমিক ৬২ শতাংশ শেয়ার উদ্যোক্তা পরিচালক, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের মধ্যে ২৩.১১ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের মধ্যে ১৯.২৭ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

গত ২০০৯ সালে কোম্পানিটি ১০ শতাংশ নগদ, ২০১০ সালে ১২ শতাংশ বোনাস, ২০১১ সালে ১৮ শতাংশ বোনাস, ২০১২ সালে ১৮ শতাংশ বোনাস ও ২০১৫ সালে ৫ শতাংশ বোনাস ও ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। সর্বশেষ ২০১৮ সালের আর্থিক প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ ১২ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। গত রবিবার এই সংশ্লিষ্ট বার্ষিক সাধারণ সভাও অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানে ঘোষিত লভ্যাংশ অনুমোদনও করা হয়েছে। এই বোনাস লভ্যাংশ বিওতে জমার পরই ৫ বছর পর ক্যাটাগরি পরির্বতন হবে।

নির্বাচিত সংবাদ