২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাদামাটা দল নিয়েই ভালো করতে চায় মুক্তিযোদ্ধা

সাদামাটা দল নিয়েই ভালো করতে চায় মুক্তিযোদ্ধা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ক্যাসিনো কাণ্ডের ধাক্কা সামলে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে ফুটবলে ভালো ফল করার চ্যালেঞ্জ নিতে হচ্ছে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রকে। সাদামাটা দল নিয়ে আগের থেকে কিছুটা ভালো করার লক্ষ্য দ্য রেডস্ খ্যাত ক্লাবটার। ৫ বিদেশিকে নিয়ে সেই স্বপ্ন দেখছে মুক্তিযোদ্ধা। ক্যাসিনো-কাণ্ড সব ওলটপালট করে দিয়েছে। এতে আক্রান্ত মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়া চক্রও। মুক্তিযুদ্ধের নামে প্রতিষ্ঠিত ক্লাবের এমন কর্মকাণ্ড সবাইকে অবাক করেছে। দেরিতে হলেও ব্যবস্থা নিয়েছে আইনশৃঙ্খখলা রক্ষাকারী বাহিনী। মাঠের খেলায় সোনালী দিন ফিরে আসলেই তবে মুখরক্ষা হয়।

আসন্ন প্রিমিয়ার লিগের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে মুক্তিযোদ্ধা। দলগঠনে খুব একটা চমক নেই। গত মৌসুমে ভালো খেলা দুই বিদেশী ইসমাইল বাঙ্গুরা ও পল এমিল আছেন দলে। এ দুজনই বাজির ঘোড়া। এছাড়া দলে আছেন আরও তিন বিদেশি। ফরেন রিক্রুটেই ভরসা মুক্তিযোদ্ধার।

ঐতিহ্যবাহী এ ক্লাবটি তাদের গৌরব হারিয়েছে। ২০০৭ মৌসুম থেকে শুরু হওয়া পেশাদার লীগে একবারও চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি। সর্বোচ্চ অর্জন ২০১০-১১ মৌসুম ও ২০১২ সালে রানার্সআপ হওয়া। তবে এর আগে শিরোপা জেতার রেকর্ড আছে দলটার। ১৯৯৭-৯৮ ও ২০০০ সালে তখনকার লীগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারা। তারপর নতুন নামে শুরু হওয়া জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপেও ২০০৩ সালে শিরোপা জিতেছিলো। এছাড়া ফেডারেশন কাপে তিনবার সেরা হয়েছে ক্লাবটি।

গত মৌসুমে ২৪ ম্যাচের ৬টিতে জিতেছে মুক্তিযোদ্ধা। ১০ ম্যাচে হার, বাকী ৮ ম্যাচে ড্র। ২৬ পয়েন্ট নিয়ে গত মৌসুমে পয়েন্ট টেবিলের ৭ নম্বরে থেকে লীগ শেষ করে মুক্তিযোদ্ধা। এবারও লক্ষ্যটা খুব বড় নয়। আগের চেয়ে কিছুটা ভাল করতে পারলেই সন্তুষ্ট হবে ক্লাবটি।

এবারও ক্লাবটির হেড কোচের দায়িত্ব সামলাবেন আবদুল কাইয়ুম সেন্টু। হোম ভেন্যু গোপালগঞ্জের শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়াম। ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে এবারের প্রিমিয়ার লীগ।