২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আসছেন ট্রাম্প, প্রাচীর তুলে বস্তি আড়াল করছে ভারত

আসছেন ট্রাম্প, প্রাচীর তুলে বস্তি আড়াল করছে ভারত

অনলাইন ডেস্ক ॥ চলতি মাসের শেষের দিকে ভারত সফরে আসার কথা রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এই সফরে ভারতের আহমেদাবাদে যাবেন তিনি। আহমেদাবাদ যাওয়ার পথে রাস্তার আশ-পাশের বস্তিগুলো ট্রাম্পের চোখের আড়াল করতে উঁচু প্রাচীর নির্মাণ করছে দেশটির সরকার।

ভারতের সরকারি জ্যেষ্ঠ এক কর্মকর্তা ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, বস্তি আড়াল করার জন্য নয়; ওই প্রাচীরটি নির্মাণ করা হচ্ছে নিরাপত্তার কারণে। কিন্তু প্রাচীর নির্মাণের দায়িত্বে থাকা প্রতিষ্ঠান বলছে, আহমেদাবাদ বিমানবন্দর থেকে ট্রাম্পে যখন এই সড়ক হয়ে যাবেন; সরকার চায় তখন যেন তার চোখে এই বস্তি না পড়ে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রাচীর নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানের ওই কর্মকর্তা বলেছেন, যত দ্রুত সম্ভব আমাকে এই প্রাচীর নির্মাণের কাজ শেষ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রকল্পটি শেষ করার জন্য ১৫০ জনের বেশি শ্রমিক দিন-রাত কাজ করছেন।

তবে সরকারি কর্মকর্তারা রাস্তার দুই পাশে সৌন্দর্যবর্ধন এবং পরিষ্কার অভিযানের অংশ হিসেবে এই প্রাচীর নির্মাণ করা হচ্ছে বলে স্বীকার করেছেন। কারণ যাই হোক না কেন, আহমেদাবাদের রাস্তার পাশে ৪০০ মিটার দীর্ঘ এবং সাত ফুট উচ্চতার যে প্রাচীর নির্মাণ করা হচ্ছে তা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের চোখ থেকে ৮০০ পরিবারের এক বস্তিকে আড়াল করবে সেটি পরিষ্কার।

অভিবাসন ঠেকাতে মেক্সিকো সীমান্তে প্রাচীর নির্মাণে নির্বাচনের আগে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আগামী ২৪ এবং ২৫ ফেব্রুয়ারি ভারত সফরে এসেও তিনি এমন আরেকটি প্রাচীরের মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন; যার আড়ালে পড়ে থাকবে পুরো একটি বস্তি।

আহমেদাবাদের স্টেডিয়ােমে কেম কো ট্রাম্প নামে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। গত সেপ্টেম্বরে মোদির যুক্তরাষ্ট্র সফরের সময় হাউডি মোদি নামে একই ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন ট্রাম্প।

মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে ভারত সফরের ব্যাপারে সাংবাদকিদের সঙ্গে আলাপকালে মার্কিন এই প্রেসিডেন্ট বলেন, আহমেদাবাদের সমাবেশে লাখ লাখ মানুষ জমায়েত হবেন।

তিন দশকের বেশি সময় ধরে আহমেদাবাদের ওই বস্তিতে বসবাস করে আসছেন দিনমজুর প্রভাতভাই মাফাভাই। তিনি বলেন, দারিদ্রতা এবং বস্তি আমাদের জীবনের এক বাস্তবতা। কিন্তু মোদি সরকার আমাদের সেই দারিদ্রতাকে আড়াল করতে চায়।