২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২০  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অনলাইনে এনআইডি কার্ড পাবে বাংলাদেশী ব্রিটিশ নাগরিকরা

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ বাংলাদেশী-ব্রিটিশ নাগরিকরা বিদেশ থেকে অনলাইনে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বা স্মার্ট কার্ডের জন্য নিবন্ধন করতে পারবেন। লন্ডনে বাংলাদেশ হাই কমিশন (এইচসি) যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ডে এ সম্পর্কিত আনুষ্ঠানিক নিবন্ধন উদ্বোধন করেছে। শনিবার ইউকে বাংলাদেশ মিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বুধবার লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদার উপস্থিতিতে এ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে যুক্তরাজ্য ও আয়ারল্যান্ডে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। খবর বাসসর।

বাংলাদেশ হাইকমিশনার তাসনিমের বিশেষ উদ্যোগে পশ্চিমা দেশগুলোর মধ্যে প্রথম যুক্তরাজ্য থেকে প্রবাসী বাংলাদেশীরা এনআইডি কার্ড পেতে অনলাইনে নিবন্ধন করতে পারবেন।

সিইসি বলেন, বাংলাদেশী-ব্রিটিশ নাগরিকরা এখন তাদের বাড়ি থেকে এনআইডি কার্ডের জন্য অনলাইনে নিবন্ধন করতে পারবেন। তিনি জানান, তথ্য যাচাই করার পরে, আবেদনকারীদের আঙ্গুল ও আইরিসের ছাপ সরবরাহ করতে হাইকমিশন বা দূতাবাসের হেল্প ডেস্কে আসতে পরামর্শ দেয়া হবে। সিইসি বলেন, এনআইডি কার্ডগুলি স্ব স্ব দেশের হেল্প ডেস্কের মাধ্যমে যোগ্য আবেদনকারীদের দেয়া হবে। যা যথা সময়ে চালু হবে।

তিনি বলেন, সর্বশেষতম প্রযুক্তি ব্যবহার করে প্রয়োজনীয় সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার পর স্বল্পতম সময়ের মধ্যে এনআইডি কার্ড দেয়া হবে। তাসনিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশের ভিশন অনুসারে যুক্তরাজ্যে এনআইডি নিবন্ধকরণের উদ্বোধন করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদ্যাপনের শুরুতে বাংলাদেশী-ব্রিটিশ নাগরিকদের জন্য এটি প্রধানমন্ত্রীর উপহার।

হাইকমিশনার বলেন, লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশন ইসির কাছ থেকে পাওয়ার পরে এনআইডি কার্ডের প্রথম ব্যাচ হস্তান্তর করতে ২৩ মার্চ, ২০২০ থেকে ‘মুজিববর্ষে বিশেষ কনস্যুলার সপ্তাহ’ পালন করবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ হাইকমিশনের অনুরোধের পরে যুক্তরাজ্যের কয়েকটি বড় শহরে এনআইডি নিবন্ধন কার্যক্রম চালু করার বিষয়ে একটি সম্ভাব্যতা সমীক্ষার লক্ষে ইসির একটি প্রতিনিধি দল গত বছরের জুলাইয়ে লন্ডন, ম্যানচেস্টার ও বার্মিংহাম পরিদর্শন করেন এবং শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশী-ব্রিটিশ নাগরিকদের জন্য এনআইডির নিবন্ধন শুরু হয়।

হাইকমিশনার বলেন, ‘আমরা গত বছর ইউকেতে এনআইডি নিবন্ধকরণ শুরু করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম। এ প্রক্রিয়া শুরুর সঙ্গে সে প্রতিশ্রুতি পূর্ণ হলো।’

এই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সেবাটি যুক্তরাজ্যে প্রবাসী বাংলাদেশীদের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে জোরালো সহায়তার জন্য তিনি সিইসি এবং ইসিকে ধন্যবাদ জানান। নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (আরটিডি) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী এবং ইসির সিনিয়র সচিব মোঃ আলমগীর ইসি ভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য রাখেন।