২৫ জুন ২০১৯  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভাবচরিতার্থে পটু শব্দশিল্পী

মায়ের মুখের কথা বলতে এখন অনেক রক্তমাংসে গড়া মানুষের সম্মানবোধে আটকায়! যা যে কোনো সৃজনশীলতায় দুষ্টতার পরিচয়বাহী এবং সেটি ধসে যায় সৃষ্টির কিছুদিন পরেই। কেননা

সাহিত্য

নজরুল বিষয়ক গ্রন্থ আলোচনা

বাংলা একাডেমির সূত্রমতে এবারের একুশে বইমেলায় প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ৪৮৩৪টি। এরমধ্যে মানসম্পন্ন বই হলো ১১৫১টি। তার মানে মানহীন বইয়ের সংখ্যাই বেশি। মানসম্পন্ন বই চার ভাগের

সাহিত্য

মোনালিসার মায়াবী হাসি

কোন এক বিখ্যাত মনীষী বলেছিলেন, ‘হাসির দ্বারা পৃথিবীতে কোন বড় কাজ হয়েছে বলে আমার জানা নেই। কিন্তু অশ্রুর প্রতীক তাজমহল’। তাঁর এই বাণী ব্যর্থতায় পর্যবসিত

সাহিত্য

নদীর স্বীকৃতি পাবে

আমি কিছুতেই ভেবে পাচ্ছি না, আমার কাছ থেকে কেন তুমি আদায় করতে চাচ্ছো নদীর স্বীকৃতি? পাহাড় বা শৈলশৃঙ্গ হতে তো হওনি আবির্ভাব এমন কি কোনো সরোবর বা কুন্ড

সাহিত্য

ভূতজাল

কেউ একজন বলেছিল, দাদা স্যান্ডোগেঞ্জি পরো লোমকূপের ভাঁজে ভাঁজে সুন্দর গহনা চকচক করবে। আমি সেই থেকে স্যান্ডো গেঞ্জির পরিবর্তে হাফশার্ট কখনও খালি গায়ে গ্রাম থেকে শহর চষে বেড়িয়েছি। কেউ

সাহিত্য

মতান্তর

তোমার কথা হয়নি জানা সব দুঃখ তোমার শুকনো বালুচর নষ্ট দিনের স্মৃতি নিয়ে বুকে চলছো তবু ভুলে নিরন্তর- হয়নি লেখা কষ্টগুলো তোমার হৃদয় জুড়ে রাখেনি কেউ ধরে একলা তুমি শূন্য মাঠে

সাহিত্য

নদীমৃত্যুকা

নদীকে মৃত্যুর বালিশ এগিয়ে দেয় ক্ষমতাসীন রাজনীতির দু’জন স্থানীয় নেতা শোবে না শোবে না বলে হেঁটে যায় কিছু দূর তিনটি প্রমত্তা ছৈয়ানাও পার হয়ে ধর্ষিতা রমনী এসে

সাহিত্য

জোনাক জ্বলা সন্ধ্যা

চার বন্ধু। ডিউ, কনক, স্বপন ও রাফি এই ছুটিতে চলেছে স্বপনদের গ্রামের রাড়িতে। কারণ ডিউ ছেলেবেলা থেকে বিদেশে বেড়ে উঠেছে। দেশে ফিরে কখনও ঢাকার বাইরে

সাহিত্য

বুদ্ধদেব বসুর ‘কবিতা’ পত্রিকা

বিংশ শতাব্দীর তিন দশক অতিক্রম হলেও ভারতবর্ষে তখন এমন কোন সাহিত্যপত্র ছিল না, যেখানে কবিতাকে গুরুত্বসহকারে স্থান দেয়া হতো। সে সময়ে যেসব সাহিত্যপত্র প্রকাশিত হতো

সাহিত্য

চারপাশে মুগ্ধতা ছড়ায়

দেশের একটি ঐতিহ্যবাহী প্রকাশনার নাম অন্যপ্রকাশ। প্রথিতযশা লেখক হুমায়ূন আহমেদের অসংখ্য বই প্রকাশ করে তারা নিজেরাই ধন্য হয়েছে। অন্যপ্রকাশ প্রতিবছরই পাঠকের হাতে তুলে দিচ্ছে অসংখ্য

সাহিত্য

মেল ও একটি উঁচু মাথা ॥ গল্প

আধকানি জমির ওপর দোচালা ঘর। নতুন লাগানো টিনের চাল ঝকঝক করে। আধভাঙ্গা টিনের চালা আর শোলার বেড়ার পাকের ঘরটা বাড়ির পশ্চিম কোণার। ঘর থেকে দূরত্ব

সাহিত্য