২৪ মে ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

হিসাব - রওশন মতিন

আমার জীবন্ত অস্তিত্ব তোমার অস্থি মজ্জায় গেঁথে দেবো লৌহবেষ্টনী কংক্রিটের ঢাল শক্ত দেয়ালের মত, প্রেমহীন উত্তাপে নগ্নদেহের পলেস্তরা খসা নোনাধরা জরাজীর্ণ ক্ষয়িষ্ণু দালান-কোঠার মত কত কীট জমা হয় হৃদয়ের

সাহিত্য

ইলশে-কালচার

শেফালিদের নিজস্ব কোন নববর্ষ ছিল না, ছিল না কোন চৈত্র পার করা পয়লা বৈশাখ। কেবল পাশের বাড়ির হেঁশেলে ইলিশভাজার ধার করা ঘ্রাণ ছিলÑ একান্তই

সাহিত্য

কাকা ঋত্বিক ঘটকের পথেই হেঁটেছেন

বাংলা উপন্যাসের পরিণত যুগের দিকে তাকালে আমরা প্রথমে চোখ রাখব বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের দিকে। সেখানে শ্রমজীবী মেহনতী মানুষের স্থান নেই। ‘দুর্গেশনন্দিনী’ (১৮৬৫), ‘কপালকুণ্ডলা’ (১৮৬৬) থেকে ‘চন্দ্রশেখর’

সাহিত্য

বাংলাদেশের প্রবাদে সমাজ জীবন

ড. আশরাফ পিন্টু কলেজের স্বনামধন্য অধ্যাপক। এ প্রজন্মের তরুণ চিন্তাশীল উদ্যমী গবেষক লেখকদের মধ্যে যার অবস্থান শীর্ষে। কবিতা, ছড়া, ছোট গল্প, অনুগল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ, স্মৃতিচারণমূলক

সাহিত্য

গল্প-বার-এ বসে শোনা গল্প ॥ দেওয়ান শামসুর রকিব

-‘মৃত্যু’ বিষয়টা নিয়ে আমি কদিন ধরে ভাবছি। এই ভাবনাটির কোন যোগসূত্র নেই। সেদিন সকাল বেলা উঠেই আমার মনে হলো আজ আমি মারা গেলে কি হবে?

সাহিত্য

কবে উঠে দাঁড়াবো

+ কবে উঠে দাঁড়াবো-নরম ও নম্র সুগভীর বাঁচার নিমিত্তে ব্যাখ্যাহীন বিরোধিতায় অবিরোধী ঘোরদৌড়ে চূড়ান্ত স্তব্ধতা অস্তিত্বের অভ্যন্তরে; অসম্পূর্ণ সম্পর্কের নিরাকার শূন্যতায় পঞ্চবর্ণে ধাঁধানো দু’চোখ।

সাহিত্য

আলিজা হোসেন - মুহাম্মদ ফরিদ হাসান

আলিজা হোসেন তোমার চোখ আকাশের নীল হয়ে ভাসে খোঁচা খোঁচা দাড়ি, গোঁফ নিয়ে তুমি ঘুরে বেড়াও উ™£ান্ত, দিবালোকে বরিশালের কোনো এক গ্রাম হয়ে চিত্রলেখা মোড় তুমি যেন আরেক জীবনানন্দ দাশ কবিতার

সাহিত্য

জিয়নকাঠি -রেজাউদ্দিন স্টালিন

প্রিয় বন্ধু আসগর শুভেচ্ছা। তুমি গতকাল মোবাইলে যে প্রস্তাব রাখিয়াছ তাহা দুঃখজনক ও মর্মান্তিক। মনে পড়িতেছে ছোটবেলায় তোমাকে ‘অজগর’ বলিয়া ক্ষ্যাপাইতাম। তখন হইতে তোমার চাওয়া ছিল বেশি।

সাহিত্য

মধ্যাহ্ন, অপরাহ্ণ!

(পূর্ব প্রকাশের পর) পর্ব- ১০ নাটক করেছি অভিনয়ের প্রতি সহজাত ভালবাসা থেকে। ভেবেছি কম, করেছি বেশি। যে কোন সংলাপ উচ্চারণ করলেই তা এক ধরনের তরঙ্গ সৃষ্টি করে

সাহিত্য

গল্প ভাবনা -বিধান রিবেরু

সকল প্রশংসা তাঁরই সপ্তম দিনে নয়, গোটা সাত দিনই এখন তনি হলি ডে মুডে কাটান। এর কারণ পৃথিবী ধ্বংসের যে যজ্ঞ শুরু করবেন বলে তিনি ভেবেছিলেন,

সাহিত্য

এই দেশ এই সময়

‘এই দেশ এই সময়’ নামে সদ্য প্রকাশিত প্রবন্ধ গ্রন্থটি ইতোমধ্যে পাঠক মহলে বেশ সাড়া জাগিয়েছে। প্রবন্ধকার ড. হাবিব খান অত্যন্ত সময়োচিত চিন্তার স্ফুরণকে উন্মোচিত করতে

সাহিত্য

আধুনিক মহাকাব্য -শাহাদাৎ সরকার

এবারের একুশে বইমেলায় নব্বইয়ের অন্যতম কবি সায়ীদ আবুবকরের ‘মুজিবনামা’ প্রকাশের মধ্য দিয়ে কিছু সাহিত্য-সমালোচকের মুখে কুলুপ এঁটে দিলেন বলতেই হয়। কেননা, এই সকল সাহিত্য-সমালোচকগণ মনে

সাহিত্য

প্রস্ফুটিত মানস-কুসুম পীযূষ কান্তি বড়ুয়া

যাপিত জীবনের নানাবিধ যাতনা এড়িয়ে ছোট কাগজের মতো মননশীল এবং সৃজনশীল অজননন্দিত চর্চাকে নিয়মিত ধরে রেখে ধারাবাহিকতা বজায় রাখা চাট্টিখানি কথা নয় মোটেও। বিশেষত নিয়মিত

সাহিত্য

বাঙলার বাউল কবি -সাইফুদ্দিন সাইফুল

দেশপ্রেম মানবপ্রেম প্রকৃতিপ্রেমের পাশাপাশি মহান ভাষা-আন্দোলন ও স্বাধীনতার পক্ষে অজস্র সুন্দর সুন্দর মহান কবিতা লিখে যিনি আজ বাঙালী পাঠক সমাজে বাঙলা কাব্যজগতে ও সাধারণ খেটে

সাহিত্য